এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > বুথস্তরে গিয়ে জনসংযোগ আরও দৃঢ় করতে বড়সড় পদক্ষেপ গেরুয়া শিবিরের – জানুন বিস্তারিত

বুথস্তরে গিয়ে জনসংযোগ আরও দৃঢ় করতে বড়সড় পদক্ষেপ গেরুয়া শিবিরের – জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হওয়ার পর “দিদিকে বলো” কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে গোটা তৃণমূল দল জনসংযোগে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে তাদের অভাব- অভিযোগ শোনার চেষ্টা করছে তারা। কিন্তু বরাবরই তৃণমূলেরই “দিদিকে বলো” কর্মসূচি কোনো সুফল আনবে না বলে দাবি করতে দেখা গেছে বিজেপিকে। তবে বিজেপি নেতারা মুখে যাই বলুন না কেন, এবার তৃণমূলের এই জনসংযোগ কর্মসূচির পাল্টা কর্মসূচি হিসেবে “বুথ তীর্থ যাত্রা” কর্মসূচি শুরু করল গেরুয়া শিবির।

যেখানে দিদিকে বলোর মতো তারাও বুথে বুথে গিয়ে সাধারণ মানুষের অভাব অভিযোগ শোনার চেষ্টা করছেন। সূত্রের খবর, এদিন পুরুলিয়ার পারা ব্লকের আনারা গ্রামের বুথে গিয়ে গ্রামবাসীদের কাছ থেকে অভাব, অভিযোগ শুনলেন পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী। যেখানে উপস্থিত ছিলেন পুরুলিয়ার বিজেপি সাংসদ জ্যোতির্ময় মাহাতো, পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বিবেক রাঙা সহ অন্যান্যরা। কিন্তু হঠাৎ বিজেপির তরফে এই কর্মসূচি নেওয়া হল কেন?

তাহলে কি জনসংযোগে তৃণমূল এগিয়ে যাচ্ছে, আর তাদেরকে টেক্কা দিতেই গেরুয়া শিবিরের এই অভিনব কর্মসূচি! এদিন এই প্রসঙ্গে পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, “আমরা যারা নেতা-মন্ত্রী হয়েছি, তা সাধারন মানুষের সমর্থনের জন্য হয়েছি। আমরা অনেক সময় বড় জায়গায় গিয়ে বুথের মানুষকে ভুলে যাই। হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী আমরা তীর্থ করতে ধর্মীয় স্থানে যাই। সেখানে গিয়ে আমরা নিজেদের দুর্বলতা প্রকাশ করি এবং ভগবানের কাছে সেই অবস্থা থেকে মুক্তির পথ দেখানোর কামনা করি।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তিনি আরও বলেন, “আমরা যারা বিজেপি দল করি, তাদের কাছে প্রতিটি বুথ তীর্থক্ষেত্র। তাই সেই বুথে এসে গ্রামের বয়স্ক মানুষদের সম্মান জানানোর পাশাপাশি তাদের সুবিধা-অসুবিধার খোঁজ নিলাম। কারণ মানুষের সমর্থন ছাড়া কারো কোনো অস্তিত্ব নেই।” তবে তৃণমূলের দিদিকে বলোর পাল্টা তাদের কি এই কর্মসূচি! সাংবাদিকদের তরফে এই প্রশ্ন করা হলে এদিন সেই প্রসঙ্গে বিদ্যাসাগরবাবু বলেন, “দিদিকে বলো কর্মসূচিতে কতজন দিদিকে বলতে পেরেছেন বলুন তো!”

রীতিমত কটাক্ষ হেনে তাঁর বক্তব্য, “এই কর্মসূচি ওদের নকল হতে যাবে কেন! কেউ মাসিকে বলছেন, কেউ পিসিকে বলছেন, কেউ বড়দাকে বলছেন। আর আমরা সরাসরি গ্রামে এসে সমস্যার কথা শুনেছি। যেখানে আমাদের দলের গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে, সেখানে সেই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হবে। তা না হলে আন্দোলন করে আমরা ওই কাজ করার চেষ্টা করব।” বিশ্লেষকরা বলছেন, যতদিন আসছে, ততই জমজমাট হতে চলেছে আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন।

যে বিধানসভা নির্বাচনকে ঘিরে সমস্ত রাজনৈতিক দল তাদের সমস্ত কর্মসূচি নিচ্ছে। আর আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মূল লড়াইটা তৃণমূল বনাম বিজেপি হতে বাধ্য। ফলে, লোকসভা ভোটে যেখানে বিজেপি ভালো ফল করেছে – সেখানে জনসমর্থন পুনরুদ্ধারে বেশি জোর দিচ্ছে তৃণমূল। আর তাই, স্বাভাবিকভাবেই বিজেপি সেখানে সামান্যতমও রাশ আলগা করতে চায় না। আর তাই এই পরিস্থিতিতে জনসংযোগকে ঝালাই করে নিতেই পুরুলিয়া জেলা বিজেপির উদ্যোগে এই অভিনব কর্মসূচি বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!