এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপিতে যোগ দিয়েই বড়সড় ধাক্কা খেলেন শোভন চ্যাটার্জি, জেনে নিন বিস্তারিত

বিজেপিতে যোগ দিয়েই বড়সড় ধাক্কা খেলেন শোভন চ্যাটার্জি, জেনে নিন বিস্তারিত

কয়েকদিন হল বিশেষ বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর এই নিয়েই সরগরম রাজনীতি। কি হল এমন?

জানা যাচ্ছে তৎকালীন তৃণমূলের নেতা মন্ত্রী ও মেয়র এবং বর্তমানের বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নারদ কাণ্ডে ফের সিবিআই তলব করেছে। আগামী 31 আগস্ট এর মধ্যে তাকে সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। যদিও এর আগেও শোভনবাবু সিবিআইয়ের মুখোমুখি হয়েছেন কিন্তু তবুও এবারে তাকে ডাকা নিয়ে জল্পনা চরমে উঠেছে।

বিজেপিতে যোগ দেয়ার পর থেকে তৃণমূলের তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল নারদা কাণ্ডে নাম জড়াতেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত নারদ কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে তাঁর। ম্যাথুর থেকে 5 লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছিল এবং সেই টাকা তিনি কোন খাতে খরচ করেছিলেন সেই ব্যাপারে জানার জন্য তাকে একবার ডেকেও ছিল তদন্তকারী সংস্থা। শোভনবাবুর বিরুদ্ধে আরো অভিযোগ ছিল যে তিনি ম্যাথ্যুর সংস্থার যাতে রাজ্যের কোন রকম কাজ করতে সমস্যা না হয় তার জন্য তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেছিলেন।

বর্তমানে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়ার পর বৈশাখীদেবী ও শোভন বাবুকে নিয়ে শোরগোল পড়ে গেছে। বৈশাখী দেবী এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে দল ভাতের সাথে তুলনা করেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর শুধু তাই নয় তারপর ঘটে গেছে একের পর এক কাণ্ড।.

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

শোভন বাবুকে রাজ্য বিজেপি দফতরে অভ্যার্থনা জানানোর জন্য আমন্ত্রণ পত্রে শুধুমাত্র তাঁর নাম রাখা হলেও সেখানে নাম ছিল না বৈশাখী দেবীর। যা নিয়ে বেজায় চটেছিলেন বৈশাখী দেবী। এই নিয়ে তিনি শোভনবাবুকে নালিশ করেছিলেন আর সেই নালিশ পাবার পর শোভনবাবু দিল্লিতে ফোন করেছিলেন যার পর নড়েচড়ে বসেন দিল্লির কর্তৃপক্ষ এবং রাজা বিজেপির তরফ থেকে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম রাখা হয়. কিন্তু তাতেও সাংবাদিক বৈঠকে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন বৈশাখীদেবী।

এখানেই শেষ নয় দিলীপবাবুদের সঙ্গে বিধায়কদের বিশেষ বৈঠকে শোভনবাবুর সাথে থাকার চেষ্টা করেছিলেন। যেখানে শুধুমাত্র শোভনবাবুকেই ডাকা হয়েছিল , বৈঠকে ঢুকতে না পেরে রাগ করে বিজেপি দফতরে বসে না থেকে গাড়িতে এসে বসেছিলেন বৈশাখীদেবী। জানিয়েও কম বিতর্ক হয়নি। এই সমস্ত কিছুনিয়ে রাজ্য বিজেপির অন্দরে প্রবল চর্চা শুরু হয়েছিল। আর এরপর এ দিনের ফের নারদা কাণ্ডে সিবিআই-এর ডাক পড়ায় জল্পনা আরও বেড়ে গেল.

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!