এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপির উপর চাপ বাড়াচ্ছে শিবসেনা, পরামর্শের ছলে দলের মধ্যেই বিভাজনের পরিকল্পনা

বিজেপির উপর চাপ বাড়াচ্ছে শিবসেনা, পরামর্শের ছলে দলের মধ্যেই বিভাজনের পরিকল্পনা

চাকরিক্ষেত্রে মারাঠা সংরক্ষণের দাবীতে আবার সরব হল শিবসেনা। প্রভাবশালী এই গোষ্ঠীর এই সংরক্ষণ সংক্রান্ত বিক্ষোভ ও সংঘর্সে চলতি সপ্তাহের গোড়ায় অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছিল মুম্বই। মৃত্যুও হয়েছিল ৩ জনের। শিবসেনার দাবী রাজ্য সরকার বিষয়টি যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে দেখছে না। কেন্দ্রও এই ব্যাপারে উদাসীন বলে তাঁদের অভিযোগ। এই চাপান উতরের মধ্যেই বিজেপির পঙ্কজা মুণ্ডে বলেন তাঁর হাতে ক্ষমতা থাকলে তিনি এক মিনিটে সংরক্ষণ সমস্যা মিটিয়ে ফেলতে পারবেন। তাঁর এই বক্তব্যের সাথে সাথেই শিবসেনা বিজেপি রাজ্য প্রধানকে আক্রমন করে বলে তাহলে পঙ্কজা মুণ্ডেকে কেন একঘন্টার জন্যে মুখ্যমন্ত্রী করা হচ্ছে না? বিজেপিরই নেত্রী যদি এই সমস্যা সামাল দেওয়ার ক্ষমতা রাখেন তাহলে বিজেপির উচ্চনেত্রিত্ব কেন এই বিষয়ে চুপ?

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

বিড জেলার জনসভায় মারাঠাদের বিক্ষোভের প্রসঙ্গে মহারাষ্ট্রের গ্রামোন্নয়নমন্ত্রী পঙ্কজা মুণ্ডে বলেন, “মারাঠাদের সংরক্ষণের ফাইল আমার টেবিলে থাকলে সিদ্ধান্ত নিতে এক মুহূর্ত দেরি করতাম না। হাইকোর্টে মামলা ঝুলে থাকায় দেরি হচ্ছে”। পঙ্কজার বক্তব্যকে হাতিয়ার করে মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করেছে শিবসেনা। দলীয় মুখপত্র ‘সামনা’-য় শিবসেনা বলেছে, “এর অর্থ সরকার উদাসীন। পঙ্কজা মুণ্ডে যদি জট কাটাতে পারেন তাহলে অন্তত একঘণ্টার জন্য ওঁকে মুখ্যমন্ত্রী করে দিলেই হয়। মারাঠাদের সংরক্ষণের বিষয়ে একটা সিদ্ধান্তে আসা যাবে। পঙ্কজার অবস্থানও বুঝতে হবে। তিনি রাজনীতি করছেন ভাবারও কোনও কারণ নেই। তিনি যদি এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করার অনুরোধ জানাতে পারেন তাহলে ফড়নবিশের আটকাচ্ছে কোথায়? দিল্লি গিয়ে তিনি তা করছেন না কেন? মারাঠাদের মনে প্রশ্ন, রাজ্য সরকার কি ইচ্ছে করে বিষয়টা ঝুলিয়ে রাখতে চায়? সমস্যা থেকে কি মুখ্যমন্ত্রী সরে থাকতে চান?”

মারাঠা সংরক্ষণ মেটাতে রাজ্য সরকারের সদিচ্ছার কথা জানিয়ে মহারাষ্ট্রের রাজস্বমন্ত্রী চন্দ্রকান্ত পাটিল বলেন, ‘মারাঠাদের দাবি মেটাতে রাত ৩টে পর্যন্ত জেগে কাজ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ।’ তাতে শিবসেনার পাল্টা বক্তব্য পঙ্কজা মুণ্ডে যদি ওঁকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যান কাজের নিরিখে? তাই রাত জেগে কাজ তো ওঁকে করতেই হবে। এতে আর আশ্চর্যের কি আছে।

এদিকে এই সূত্রে মোদীকে কেও একহাত নিয়েছে শিবসেনা। মোদীর ঘন ঘন বিদেশ সফরকে খোঁচা দিয়ে শিবসেনা বলে “মারাঠাদের সমস্যার সমাধানের জন্য মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রের সাহায্য চাইলেও প্রধানমন্ত্রীর দেখা পাওয়া ভার। তিনি বেশির ভাগ সময় বিদেশে থাকেন। দেশের, রাজ্যের সমস্যায় ওঁর কোনও আগ্রহ নেই”। বিজেপিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে উদ্ধবের দল বলে গুজরাটে প্যাটেলদের আন্দোলন দমন করা হলেও সে পথে মারাঠাদের আটকান সম্ভব হবেনা।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!