এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > BREAKING – সেলিব্রিটি ও বুদ্ধিজীবীদের একছাতার তলায় আনতে বড়সড় মাস্টারস্ট্রোক গেরুয়া শিবিরের

BREAKING – সেলিব্রিটি ও বুদ্ধিজীবীদের একছাতার তলায় আনতে বড়সড় মাস্টারস্ট্রোক গেরুয়া শিবিরের

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে গেরুয়াঝড় ওঠার পরে – বিজেপির লক্ষ্য এবার নবান্নের গদি। ফলে, সংগঠনকে আরও মজবুত করতে উঠেপড়ে লেগেছেন বঙ্গ-বিজেপির নেতারা। আর সংগঠন বৃদ্ধি করতে গেলে, তাতে বাংলার বুদ্ধিজীবী মহল ও সেলিব্রিটিদের যে একটি বিশেষ ভূমিকা আছে – তা প্রকারন্তরে মেনে নিচ্ছেন রাজ্য বিজেপি থেকে শুরু করে সঙ্ঘের হেভিওয়েটরা। আর তাই বিজেপির ‘টার্গেটে’ বেশ বড়সড় ভূমিকা নিতে চলেছে টলিউড।

কিন্তু, টলিউডের হাত ধরে সংগঠন বাড়াতে গিয়ে লোকসভা নির্বাচনের পরে বেশ কিছুটা ভুল বোঝাবুঝিতে তা যেন কোথাও গিয়ে থমকে যাচ্ছিল। একদিকে রন্তিদেব-শঙ্কুদেবের হাত ধরে একটি সংগঠন, অন্যদিকে দিলীপ-অগ্নিমিত্রার হাত ধরে পাল্টা একটি সংগঠন – কার নৌকা পাল তুলবে, তাই নিয়েই যেন শুরু হয়েছিল অদৃশ্য রেষারেষি। আর তারফলে, কোথাও গিয়ে থমকে যাচ্ছিল সেলিব্রিটি ও বিদ্বজনদের আপন করে নেওয়ার প্রক্রিয়া।

আর তাই এবার সব ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে – একটি মাত্র সংগঠন আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে গেরুয়া শিবিরের হয়ে। সূত্রের খবর, গতকাল গভীর রাত পর্যন্ত বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ তথা প্রখ্যাত সাংবাদিক স্বপন দাসগুপ্তের দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে একটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই ঠিক হয়ে যায়, বিদ্বজনদের এক ছাতার তলায় আনার নীল নকশা। কালকের বৈঠকেই ঠিক হয়, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে সভাপতি করে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে গেরুয়া শিবিরের নতুন সংগঠন ‘খোলা হাওয়া’।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

তবে চমকের এখানেই শেষ নয়, ‘খোলা হাওয়া’র পুরো সংগঠন জুড়েই রয়েছেন গেরুয়া শিবিরের রথী-মহারথীরা। ‘খোলা হাওয়া’তে প্রধান উপদেষ্টা থাকছেন রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। রন্তিদেব সেনগুপ্তও উপদেষ্টা মন্ডলীতে অন্যতম শীর্ষ ভূমিকা নিতে চলেছেন। সংগঠনের আহ্বায়কের দায়িত্ব সামলাবেন বিজেপির যুবনেতা শঙ্কুদেব পণ্ডা। তাঁকে সহযোগী হিসাবে সাহায্য করতে চলেছেন অরিন্দম চক্রবর্তী। বিজেপিতে যোগ দেওয়া দুই সেলিব্রিটি অভিনেত্রী-ফ্যাশন ডিজাইনার জুটি অঞ্জনা বসু ও অগ্নিমিত্রা পাল সামলাবেন সহ-সভানেত্রীর দায়িত্ব।

এছাড়াও, সম্পাদকের দায়িত্ব বর্তাচ্ছে রূপা ভট্টাচার্য ও অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর। তবে, সংগঠনের রূপরেখা ঠিক হয়ে গেলেও ‘খোলা হাওয়া’র আত্মপ্রকাশে আরও তিন-চারদিন লাগতে পারে বলে ধারণা সংশ্লিষ্ট মহলের। সেদিনই বিজেপির তরফে বড়সড় সাংবাদিক বৈঠক করে আনুষ্ঠানিকভাবে, পদাধিকারী সহ সবকিছু ঘোষণা করা হবে। তবে সভাপতির আসনে বসেই সংগঠনের দিকনির্দেশ ঠিক করে দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

রীতিমত আক্রমণাত্মক ঢঙে নাম না করে রাজ্যের এক শীর্ষমন্ত্রীর দিকে ইঙ্গিত করে তিনি জানান, যেভাবে রাজনীতির থাবা দখল করেছে টলিউডকে, অবিলম্বে সেই থাবা থেকে মুক্ত করতে হবে। অন্যদিকে, আক্রমণাত্মক মেজাজে ঝড় তুলেছেন শঙ্কুদেব পণ্ডাও। প্রিয় বন্ধু বাংলাকে তিনি জানিয়েছেন, টালিগঞ্জ এখন অন্ধ’বিশ্বাসে’ আক্রান্ত, অবিলম্বে তার আত্ম’বিশ্বাস’ ফেরাতে হবে। এই জন্যই ‘খোলা হাওয়া’র প্রয়োজন। সেলিব্রিটি ও বুদ্ধিজীবী মহলকে এক ছাতার তলায় আনার প্রয়াসে গেরুয়া শিবিরের এই ‘মাস্টারস্ট্রোক’ এখন কিভাবে রাজ্য-রাজনীতিকে আবর্তিত করে সেদিকেই এখন তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!