এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপির প্রার্থীতালিকা নিয়ে আজ রাজ্যনেতাদের সঙ্গে অমিত শাহের চূড়ান্ত বৈঠক, উঠতে চলেছে বড়সড় ঝড়!

বিজেপির প্রার্থীতালিকা নিয়ে আজ রাজ্যনেতাদের সঙ্গে অমিত শাহের চূড়ান্ত বৈঠক, উঠতে চলেছে বড়সড় ঝড়!

গতকাল সন্ধ্যেবেলাতেই জাতীয় নির্বাচন কমিশন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট ঘোষণা করে দিয়েছে। আর তারপরেই আজ সন্ধ্যে সাড়ে ৭ টায় দিল্লিতে বাংলার রাজ্য নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন স্বয়ং অমিত শাহ। অমিত শাহের সঙ্গে এই বৈঠকে থাকতে চলেছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা, বাংলার নির্বাচনী আহ্বায়ক মুকুল রায়, কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় ও ৪ রাজ্য সম্পাদক। তবে প্রার্থীতালিকা নিয়ে বৈঠক হলেও – তার আগেই বড়সড় ঝড় উঠতে চলেছে এই বৈঠকে বলে সূত্রের খবর।

নির্বাচন ঘোষণার প্রাক্কালে অমিত শাহের স্পষ্ট ঘোষিত নীতি ছিল – বাংলায় দলকে বড় করতে হবে। ফলে, অন্যদল থেকে যাঁরা আসছেন তাঁদের অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দলে নিতে হবে। আর অমিত শাহের এই নির্দেশকে সামনে রেখে তৃণমূল কংগ্রেসকে ভাঙার কাজ শুরু করেন মুকুল রায়। অনেক নেতা-নেত্রীর সঙ্গেই কথাবার্তা অনেকদূর এগোলেও – শেষপর্যন্ত সকলেরই যোগদান ঝুলে আছে। আর এর প্রধান কারণ হল – রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সহ রাজ্য নেতৃত্বের একাংশের ওই নেতা-নেত্রীদের দলে নেওয়া নিয়ে প্রবল অনীহা। দিলীপবাবু নাকি জানিয়ে দিয়েছেন – যাঁদের বিজেপিতে আসার কথা চলছে, তাঁদের নামে অনেক অভিযোগ আছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

দিলীপবাবুর আরও বক্তব্য, এইসব নেতা-নেত্রীদের দলে নিলে নাকি বিজেপির ভাবমূর্তি খারাপ হবে। তাই কোনোমতেই এঁদের এখন দলে নেওয়া যাবে না। সূত্রের খবর, বিজেপির দিকে পা বাড়ানো এক হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদ এই নিয়ে সরাসরি কথা বলেছেন অমিত শাহের সঙ্গে। আর সেই বৈঠকে রীতিমত আগুন ছুটিয়েছেন সেই সাংসদ। দিল্লি সূত্রের খবর, ওই হেভিওয়েট সাংসদ অমিত শাহকে স্পষ্ট জানিয়েছেন, এতদিন জানতাম আরএসএস বা বিজেপির আধিকারিকরা পদের জন্য লালায়িত নয়। কিন্তু, বঙ্গ বিজেপির অবস্থা তা তো নয়! এখানে যাঁরা বিজেপিতে যোগদান করতে চলেছেন, তাঁরা ধারে ও ভারে কার্যত রাজ্য বিজেপির নেতাদের ঢেকে দেবেন আর তাই পদ হারানোর ভয়েই রাজ্য বিজেপি তাঁদের যোগদান করতে দিচ্ছেন না!

আমি শাহ নাকি ওই হেভিওয়েট সাংসদের এই অগ্নিবর্ষন শুনে রীতিমত স্তম্ভিত! আর তাই আজ প্রার্থীতালিকা বাছাইয়ের আগে এই নিয়ে রীতিমত প্রশ্নজালে তিনি নাজেহাল করে দিতে পারেন রাজ্য নেতাদের। এমনকি, গেরুয়া শিবিরের একটি অংশ জানাচ্ছে, এই বিষয়ে সদুত্তর না পেলে কার্যত রাজ্য কমিটিকে ‘ঠুঁটো জগন্নাথ’ করেই নির্বাচনের কাজ করতে পারেন তিনি। এছাড়াও, টিকিট প্রত্যাশা নিয়ে রাজ্যে নেতাদের চূড়ান্ত আকচা-আকচিও ভালোভাবে নেন নি অমিত শাহ। তাঁর গোপন সমীক্ষার রিপোর্টে নাকি বহু আসন আছে হাড্ডাহাড্ডি – যেখানে ঠিকঠাক প্রার্থী দিতে পারলে, বিজেপির জেতার সমূহ সম্ভাবনা। অথচ সেইসব আসনে রাজ্য এমন নাম পাঠিয়েছে – যাঁদের জনসংযোগ ও জনভিত্তি নিয়ে বহু প্রশ্ন। তাই – সবমিলিয়ে আজকের বৈঠকে অমিত শাহের ঝড়ের সামনে পড়তে চলেছেন গেরুয়া নেতারা বলেই সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!