এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপির পর দিদিকে বড়সড় ধাক্কা দিল আরএসএস, চাঞ্চল্যকর রিপোর্টে জল্পনা তুঙ্গে

বিজেপির পর দিদিকে বড়সড় ধাক্কা দিল আরএসএস, চাঞ্চল্যকর রিপোর্টে জল্পনা তুঙ্গে

বাংলা যে তাদের এবার মূল টার্গেট তা লোকসভা নির্বাচনের আগেই জানিয়ে দিয়েছিল বিজেপি। আর সেইমত বাংলায় 18 টি আসন দখল করে শাসক দল তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে তারা। কিন্তু এবার লোকসভা ভোটে ব্যাপক সাফল্যের পর বাংলায় আরএসএসের প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। যা নিঃসন্দেহে শাসক শিবির তৃণমূলের ঘুম কেড়ে নিতে পারে বলেই দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনের সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় দেখলেই জয় শ্রীরাম স্লোগান দিতে দেখা যায় কিছু যুবককে। আর যা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ক্রুদ্ধ ভাবমূর্তি প্রত্যক্ষ করেছে সকলেই। কেন জয় শ্রীরাম স্লোগান বললেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষেপে হয়ে উঠবেন, তা নিয়ে প্রশ্ন করতেও দেখা যায় বিভিন্ন মহলকে। আর তৃনমূল নেত্রী কথা মুখ্যমন্ত্রী যত এই জয় শ্রীরাম স্লোগান এর পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষেপে উঠেছেন, ততই বিজেপির দিকে সাধারণ মানুষের সমর্থন বেড়েছে বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আর এই পরিস্থিতিতে এবার আরএসএসের প্রতি সাধারণ মানুষের মনোযোগ তৃণমূলকে অত্যন্ত চাপে রাখতে পারে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ সূত্রের খবর, উত্তরপ্রদেশের পর এই মুহূর্তে বাংলায় তাদের সবথেকে বেশি মানুষ যোগ দিচ্ছেন।

জানা গেছে, উত্তরপ্রদেশে আরএসএসের ছটি দপ্তর থাকলেও বাংলায় তাদের মোটে দুইটি দপ্তর রয়েছে। ফলে সেইভাবে তারা বাংলায় বিস্তৃতি লাভ না করলেও লোকসভা ভোটের পর বিজেপির সাফল্যের জেরে আরএসএসের প্রতি সাধারণ মানুষের এই আগ্রহ রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

কেন হঠাৎ রাজ্যে আরএসএসের এই বাড়বাড়ন্ত! এদিন এই প্রসঙ্গে কার্যকর্তাদের দাবি, যেভাবে বাংলায় প্রশাসন ধর্মীয় ভেদাভেদের জায়গা থেকে রাজনীতিতে নেমেছে, তা দেখেই একটি ধর্মের মানুষেরা গেরুয়া শিবিরের দিকে ঝুঁকতে শুরু করেছেন।

বাংলায় আরএসএসের এই বাড়বাড়ন্তকে তৃণমূল যে খুব একটা ভালো চোখে দেখছে না এবং এর জেরে তাদের ভোটব্যাংকে যে বড়সড় প্রভাব পড়তে পারে এখন সেই আশঙ্কায় ঘুম উড়তে শুরু করেছে ঘাসফুল শিবিরের নেতাদের। সব মিলিয়ে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবককে রুখতে এখন তৃনমূলের তরফে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় কিনা, সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!