এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কোন পথে, কি ফর্মুলায় বিজেপি রথযাত্রা সফল করতে চলেছে – ‘ফাঁস’ করে দিলেন রাজ্যের হেভিওয়েট তৃণমূল মন্ত্রী

কোন পথে, কি ফর্মুলায় বিজেপি রথযাত্রা সফল করতে চলেছে – ‘ফাঁস’ করে দিলেন রাজ্যের হেভিওয়েট তৃণমূল মন্ত্রী

আগামী 7 ডিসেম্বর “গণতন্ত্র বাঁচাও” নামক এক রথযাত্রা কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে কোচবিহার থেকে নিজেদের লোকসভার প্রচার শুরু করে দিতে চাইছে গেরুয়া শিবির। আর বিজেপির এই রথযাত্রাকে ঘিরে এখন সরগরম হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। জানা গেছে, এই রথযাত্রা কর্মসূচির দিন কোচবিহারের ঝিনাইডাঙ্গায় দলীয় কর্মীর মাঠে সভা করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। ইতিমধ্যেই তার প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বরা।

শাসক দলের দুষ্কৃতীদের যাতে এর কোনোরূপ ক্ষতি না করতে পারে সেজন্য রাতভর পাহারাও দিচ্ছে তারা। আর দলের সর্বভারতীয় সভাপতির এই সভাকে সফল করতে বিজেপির এখন অন্যতম ভরসাস্থল হয়ে দাঁড়িয়েছে অসম। জানা গেছে, সেই অসম রাজ্য থেকে এই কোচবিহারের সভায় লোক আনবার জন্য গাড়িও ভাড়া করেছে বিজেপি।

যদিও বা পরবর্তীতে সেই গাড়ি ভাড়ার টাকা বিজেপিকে ফেরত দিয়ে দিয়েছে সেই গাড়ির মালিকেরা। সব মিলিয়ে এখন খোদ তৃণমূলের গড় হিসেবে পরিচিত কোচবিহারের নিজেদের রথযাত্রার সূচনা পর্বকে সফল করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে গেরুয়া শিবির। কিন্তু বিজেপির এই রথযাত্রা আদৌ কি সফল হবে?

আর সফল হলেও ঠিক কোন পথে তারা পাবে সেই সফলতা? সূত্রের খবর, এদিন এই রথযাত্রা প্রসঙ্গে বিজেপিকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করেন কোচবিহার জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি বলেন, “অসম থেকে লোকজন এনে বিজেপি সভাস্থল ভরানোর চেষ্টা করছে। ওদের সংগঠন এখানে এতটাই দুর্বল যে ওদের বাইরে থেকে লোক আনতে হচ্ছে। অমিত শাহ একটি বুথ সভা করতে আসছেন।”

অন্যদিকে পাল্টা তৃণমূলকে কটাক্ষ করে বিজেপির এই রথযাত্রার দায়িত্বে থাকা সুদীপ্ত চট্টোপাধ্যায় বলেন, “তৃণমূল মেশিনারি ব্যবহার করা সত্ত্বেও ঝিনাইডাঙাতেই আমাদের সভা হবে। এখানকার অধিকাংশ বাস শাসকদলের চাপেই ভাড়া করা সম্ভব হচ্ছে না।” তাহলে কি সত্যিই বিজেপির এই বাস না পাওয়ার পেছনে রয়েছে শাসকদলের হাত?

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “ওরা গাড়ি ভাড়া নিয়ে টাকা মেটায় না। রাসমেলার সময় পরিবহন ব্যবস্থাকে কোনওভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত করা যাবে না।” অন্যদিকে বিজেপির রথযাত্রা আর সফলতা নিয়েও এদিন কিছুটা প্রশ্ন তুলে দেন কোচবিহার জেলা তৃণমূলের সভাপতি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তিনি বলেন, “এখানে মদনমোহন ঠাকুর রথে চড়েন। তাই এখানে অন্য কাউকে আমরা রথযাত্রা করতে দেবো না। বিজেপির এই রথ যেই জায়গা দিয়ে যাবে আমাদের কর্মীরা সেই রাস্তা গঙ্গাজল, গোবরজল দিয়ে শুদ্ধিকরণ করবে।” তবে ভবিষ্যতে তৃণমূল নেতাদেরই বাড়ি এবং নবান্ন মানুষ শুদ্ধিকরণ করবে বলে পাল্টা শাসক দলের প্রতি কটাক্ষ করে দেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। সব মিলিয়ে এবার বিজেপির সূচনালগ্নের রথযাত্রা নিয়ে কোচবিহারে শাসক-বিরোধী তরজা চরমে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!