এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রথযাত্রা ও রবীন্দ্র-ভাবাবেগের মিশেলে বাংলায় গেরুয়া ঝড় তোলার পরিকল্পনায় বিজেপির নেতৃত্ব

রথযাত্রা ও রবীন্দ্র-ভাবাবেগের মিশেলে বাংলায় গেরুয়া ঝড় তোলার পরিকল্পনায় বিজেপির নেতৃত্ব

বাঙালির রবীন্দ্র-আবেগকে কাজে লাগিয়েই রথযাত্রা সফল করার পরিকল্পনা গেরুয়া শিবিরের। রবীন্দ্র সংগীতই হতে চলেছে রাজ্যে বিজেপির থিম সং। রবি ঠাকুরের পূজা পর্যায়ের অতি চেনা ‘উড়িয়ে ধ্বজা অভ্রভেদী রথে, ওই-যে তিনি ওই-যে বাহির পথে’ গানটি নিয়ে বানানো হচ্ছে একটি ভিডিও। চলমান রথের সঙ্গেই বাজতে থাকবে গানটি,তার সঙ্গেই পর্দায় চলবে ভিডিও। আপাতত থিম সংয়ের সঙ্গে থাকা ভিডিও নির্মানের কাজ চলছে,এমনটাই জানালেন রাজ্য বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু।

মাস ঘুরতেই রথযাত্রার দামামা বেড়ে যাবে গেরুয়া শিবিরের। কার্যত এই রথযাত্রার মধ্যে দিয়েই লোকসভা নির্বাচনী প্রচার শুরু করতে চলেছে বঙ্গ বিজেপি। ৭ ডিসেম্বর কোচবিহার,৯ ডিসেম্বর গঙ্গাসাগর এবং ১৪ ডিসেম্বর তারাপীঠ থেকে তিনটি রথ বেরিয়ে ৪২ টি লোকসভা কেন্দ্র ছুঁয়ে যাবে। আর তিনটি রথেরই সূচনা করবেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

প্রত্যেকটি লোকসভা কেন্দ্র ঘুরে ১৬ জানুয়ারী রথ আসবে কোলকাতায়। তারপরই বিগ্রেডপ নরেন্দ্র মোদীর সভা করার কথা। সুতরাং সবমিলিয়ে রথযাত্রা নিয়ে চূড়ান্ত ব্যস্ততা রয়েছে বিজেপি শিবিরে। যাত্রার প্রস্তুতি নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যে ছুটে বেড়াচ্ছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বরা। শিবপ্রকাশ,অরবিন্দ মেননের মতো হেভিওয়েট বিজেপি নেতৃত্বরা প্রস্তুতির কর্মসূচি বাংলায় রয়েছেন। ৪১ দিনের এই রথযাত্রার কর্মসূচিতে অমিত শাহের সঙ্গে পড়শি রাজ্যের তাবড় তাবড় বিজেপি নেতারা আসার কথা।

তাছাড়া প্রধানমন্ত্রীকেও কর্মসূচীর শেষ দিন হাজির করানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষ-মুকুল রায়েরা। জনসভার পাশাপাশি তারাপীঠের তৃতীয় রথের সূচনাতে নরেন্দ্র মোদীকে হাজির করানোর একটা চেষ্টাও চলছে। তাছাড়া ১৪ ডিসেম্বর রাজ্যে একটি সরকারি অনুষ্ঠানেও আসতে পারেন প্রধানমন্ত্রী, এমনটাই জানালেন রাজ্য নেতারা। ওদিনই আবার তারাপীঠ থেকে তৃতীয় রথেরও সূচনা। সেখানে থাকবেন অমিত শাহ। এখানে প্রধানমন্ত্রীও উপস্থিত থাকুন, এমনটাই ইচ্ছা রাজ্যবিজেপির।

এছাড়া, বাঙালি আবেগকে টানার পাশাপাশি কিংবদন্তীদের এনে গ্রামগঞ্জে রথটানার কর্মসূচিকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে চায় বিজেপি। এটা করলে রথযাত্রায় সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ আরো বেশিমাত্রায় হবে বলেই বিশ্বাস গেরুয়াশিবিরের।

জানা গিয়েছে,প্রায় ২ মাস ধরে চলা এই রথযাত্রার কর্মসূচিতে ডজনেরও বেশি সেলিব্রিটি আনার চেষ্টা চলছে। হেমা মালিনী,পুনম ধিলোঁ,কুমার শানুর মতো বহু জনপ্রিয় মুখ রয়েছে এই তালিকায়। চলতি সপ্তাহেই এঁদের সকলের কাছে বিজেপির তরফ থেকে আমন্ত্রণ পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সবমিলিয়ে আমন্ত্রিতের তালিকায় ৫০ জনেরও বেশি রয়েছেন বলেই জানা গিয়েছে মুরলীধর সেন লেনের সূত্রে।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

উল্লেখ্য,শুধু রথযাত্রা নয়,তার আগেই শিলিগুড়ি, মালদহ,কৃষ্ণনগর ও দুর্গাপুর কিংবা আসানসোলে অন্তত চারটি সভা করার পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্য বিজেপির। মোদী-শাহ ছাড়াও বাংলায় যেসব হেভিওয়েটরা সভা করতে বাংলায় আসছেন তাঁরা হলেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং, অরুণ জেটলি, নীতিন গড়করি, স্মৃতি ইরানি, রবিশঙ্কর প্রসাদ, পীযূষ গোয়েল, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব প্রমুখ। সেইমতোই তালিকা পাঠানো হয়েছে দিল্লিতে। আপাতত এসব নিয়েই কর্মতৎপরতা তুঙ্গে রয়েছে রাজ্যবিজেপি শিবিরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!