এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপিতে যোগ দিলেন রাহুল-মমতা, ছবি ঘিরে জোর শোরগোল রাজ্যে

বিজেপিতে যোগ দিলেন রাহুল-মমতা, ছবি ঘিরে জোর শোরগোল রাজ্যে

রাজনীতিতে দলবদল যেন এখন স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু বিরোধী দলের প্রধান ব্যক্তি, যিনি শাসকের প্রধান ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রায়শই কড়া ভাষায় সমালোচনা করেন, সেই তিনিই যদি শাসকের দলে নাম লেখান, তাহলে কেমন হবে! কথাটা শুনতে জটিল মনে হলেও, বাস্তবটা যখন সামনে আসবে তখন প্রায় চমকে উঠবেন সকলে।

বস্তুত, জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের জন্মদিন উপলক্ষে বর্তমানে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে। যেখানে অনলাইনের মাধ্যমে আগ্রহী ব্যক্তিরা তাদের নিজস্ব পরিচয় দিয়ে বিজেপির সদস্য হচ্ছেন। জানা গেছে, একটি ফর্মে নিজের ছবি দিয়ে, নিজের বায়োডাটা পেশ করলে সেখানে আপডেট মারলেই বিজেপির সদস্য হিসেবে সেই ব্যক্তির একটি ই কার্ড সামনে চলে আসছে। যেখানে সেই নির্দিষ্ট ব্যক্তির ছবি, নাম এবং মেম্বারশীপের নম্বর লেখা থাকছে।

আর এরকমই একটি ছবি দেখা গেল, তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কংগ্রেসের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর। যেখানে দেখা যাচ্ছে, তারা বিজেপির সদস্যপদ গ্রহণ করেছেন। যা ঘিরে এখন সোশ্যাল সাইটে সেই ছবি ভাইরাল হতে শুরু করেছে। কিন্তু বিরোধী দলের এই দুই নেতা নেত্রী হঠাৎ বিজেপি সদস্য পদ গ্রহণ করবেন, এটা অনেকটা দিবাস্বপ্নের সামিল হিসেবেই মনে করছে বিশেষজ্ঞরা‌।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তবে প্রকাশ্যে এইভাবে তাদের সদস্যপদ গ্রহণের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ায় বিতর্ক কমছে না কিছুতেই। দেখা গেছে, ভাইরাল হওয়া এই কার্ডের মধ্যে একটিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও নাম রয়েছে। যেখানে মুখ্যমন্ত্রীর নামের জায়গায় চৌকিদার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখা রয়েছে। একইভাবে আরেকটি কার্ডে কংগ্রেসের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর ছবি এবং নাম রয়েছে। আর এই ঘটনাতেই এবার তুমুলে উঠেছে রাজনৈতিক তরজা।

ইতিমধ্যেই বিজেপির বিরুদ্ধে নোংরা রাজনীতির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “এটা সম্পূর্ণই ভুয়ো। বিজেপি ইন্টারনেটকে ব্যবহার করে মিথ্যে খবর রটাচ্ছে। কতটা নিচ হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে এই ধরনের রটনা করা যায়! দল এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।”

সত্যিই তো তাই! একজন বিরোধীদলের নেত্রী এবং নেতার বিরুদ্ধে রাজনীতিতে তরজা থাকবে, কিন্তু তাদেরকে নিজেদের দলের সদস্য করে নেওয়ার আদৌ কি ঠিক! তবে সমালোচক মহলের একাংশ বলছেন, ইচ্ছে করে কেন বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাহুল গান্ধীকে তাদের দলের সদস্য করাতে যাবে! হয়ত গোড়ায় নিশ্চয়ই কোনো গলদ রয়েছে, যার কারণে বিজেপি বিরোধী এই দুই হেভিওয়েট নেতা নেত্রীরও বিজেপির সদস্য পদে নাম উঠেছে! তবে কি হয়েছে বা কি হবে, তা সময়ই বলবে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!