এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দলীয় সভাপতির অকালমৃত্যুতে কি বিজেপি কার্যত দিশাহীন? শীর্ষনেতার কথায় মিলল ইঙ্গিত

দলীয় সভাপতির অকালমৃত্যুতে কি বিজেপি কার্যত দিশাহীন? শীর্ষনেতার কথায় মিলল ইঙ্গিত


 

“হৃদয় বীণার তন্ত্রীতে তুমি বাজো, মরণ তোমায় হরণ করেনি আজো।” দক্ষ সংগঠক, দলের পক্ষে জোয়ারা আনা অভিজিৎ রায় চৌধুরীর অকাল প্রয়াণে এই বাক্যই আওড়াতে দেখা যাচ্ছে শিলিগুড়ির বিজেপির নেতা কর্মীদের। সমস্ত কিছু বেশ ভালই চলছিল। প্রথমবার সাফল্যের সঙ্গে শিলিগুড়িতে দলকে পরিচালনা করেছিলেন অভিজিৎ রায় চৌধুরী। দ্বিতীয়বার দলের দায়িত্ব নিতে কলকাতায় গিয়েছিলেন তিনি।

দায়িত্ব নিয়ে শিলিগুড়ির উদ্দেশ্যে রওনাও দিয়েছিলেন। কিন্তু পথেই থেমে গেল তার দ্বিতীয়বারের জার্নি। রোড অ্যাক্সিডেন্টে প্রাণ গেল শিলিগুড়ির অভিজিৎ রায় চৌধুরীর। বর্তমানে তার মৃত্যুতে শোকাহত গোটা বিজেপি পরিবার। ইতিমধ্যেই তার মৃত্যু নিয়ে ব্যাপক জলঘোলা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে দলকে চরম সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দেওয়া অভিজিৎ রায় চৌধুরীর বিকল্প কে হবেন! এখন তা নিয়েই জোর চর্চা চলছে গেরুয়া শিরোনাম অন্দরে।

সামনেই শিলিগুড়ি পৌরসভা এবং মহকুমা পরিষদের নির্বাচন। ফলে তার আগে দলের সাংগঠনিক জেলা সভাপতি অভিজিৎ রায় চৌধুরীর প্রয়ান যেন বিজেপির কাছে বিনা মেঘে বজ্রপাতের শামিল। জানা যায়, গত 2014 সালে কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে এসে 2018 সালে নিজের যোগ্যতায় শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতির পদ পান অভিজিতবাবু। তারপর থেকেই তিনি দলকে সাফল্যের মুখ দেখাতে শুরু করেছিলেন। তবে বিভিন্ন সময় তাকে দলের অন্দরে বিভিন্ন সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অনেক কর্মীরা অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু তা সত্ত্বেও ঠান্ডা মাথায় সেই সমস্ত কিছুকে মোকাবিলা করে সেই সমস্ত বিদ্রোহী কর্মীদের নিজের পক্ষে আনার চেষ্টা করেছেন অভিজিৎ রায় চৌধুরী। তবে এত কিছু করেও কাজের কাজ হল না। সকলকে ছেড়ে দ্বিতীয়বার সভাপতির পদ পাওয়া অভিজিৎবাবু চলে গেলেন পরলোকে। সামনে শিলিগুড়ি পৌরসভার নির্বাচনের আগে অভিজিৎ রায় চৌধুরীর জায়গায় কাকে বসানো যায়! তা নিয়ে বিজেপির অন্দরে তৈরি হয়েছে গুঞ্জন।

একাংশ বলছেন, শিলিগুড়িতে অনেক অবাঙালি ভোটারের বসবাস। তাই সেদিক থেকে অবাঙালি কোনো নেতাকে বিজেপি তাদের সভাপতি করতে পারে। তবে সভাপতি পদ নিয়ে শিলিগুড়িতে যে বিজেপি কিছুটা হলেও চিন্তায় রয়েছে, তা নেতাকর্মীদের আলোচনায় বারেবারেই উঠে আসছে। এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “অভিজিৎ দক্ষ সংগঠক ছিলেন। তাঁর অকাল প্রয়াণে দলের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। তবে দলে অনেক অভিজ্ঞ এবং বয়স্ক নেতা-নেত্রী আছেন। সকলের সঙ্গে আলোচনা করেই ওই পদ পূরণ করা হবে।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজুবাবুর কথাতেই স্পষ্ট যে, দলের উত্থানের সময় এহন দক্ষ সাংগঠনিক ব্যক্তির চলে যাওয়া বিজেপির কাছে অত্যন্ত চাপের কারণ। তাই সেদিক থেকে এখন অভিজিৎ রায়চৌধুরীর ছেড়ে যাওয়া শূন্যস্থান কে পূরণ করেন! সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!