এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুড়ল জেলা সভাপতির কুশপুতুল,বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধেও দলীয় কর্মীদের তীব্র ক্ষোভে উত্তাল পুরুলিয়া

পুড়ল জেলা সভাপতির কুশপুতুল,বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধেও দলীয় কর্মীদের তীব্র ক্ষোভে উত্তাল পুরুলিয়া

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগেই যখন রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় দলীয় সংগঠনকে মজবুত করতে উদ্যোগী হচ্ছে, ঠিক তখনই পুরুলিয়া জেলা বিজেপি সভাপতির বিরুদ্ধে প্রবল কর্মী অসন্তোষে জেলা বিজেপির অন্দরমহলে তৈরি হলো অশান্তির মেঘ। তবে শুধু জেলা বিজেপি সভাপতিই নয়, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের অপসারণের দাবিতেও এদিন পুরুলিয়া জেলা বিজেপির কিছু কর্মীরা বিক্ষোভে সামিল হন।

সূত্রের খবর, গতকাল দুপুরে দলীয় পতাকা এবং ব্যানার নিয়ে কিছু বিজেপি কর্মী পুরুলিয়ার এমভিআই মোড় থেকে ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে পোস্ট অফিস পর্যন্ত একটি মিছিল বের করেন। যেখানে একাংশ জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর কুশপুতুল পুড়িয়েছেন। পাশাপাশি রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের অপসারণেরও দাবি তুলেছেন। কিন্তু কেন এহেন বিক্ষোভ করছেন তারা?

এদিন এই প্রসঙ্গে পুঞ্চা এলাকার সাসপেন্ড বিজেপি যুব নেতা হরি হালদার বলেন, “পুরুলিয়ায় বিজেপিকে বাঁচাতে বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীকে সরানো প্রয়োজন। আমাদের কর্মীরা বিভিন্ন জায়গায় আক্রান্ত হচ্ছে। অনেকে দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছে, তাও বিদ্যাসাগর বাবু কাউকে ধরে রাখতে পারছেন না।”

কিন্তু খোদ রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে তাদের এই বিক্ষোভ কেন? এই প্রসঙ্গে সাসপেন্ড যুব বিজেপি নেতা বলেন, “রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কাছে জেলা বিজেপির বিষয়ে নানা অভিযোগ করা হলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। উল্টে নিজের পছন্দের লোকেদের বসিয়ে এই জেলার ক্ষতি করছেন।”

কিন্তু দলীয় কর্মীরা তার প্রতি এভাবে অসন্তুষ্ট কেন? এদিন এই প্রসঙ্গে পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, “বিজেপিকে হেয় করতেই কয়েকজন এই চক্রান্ত করছে। এর পেছনে তৃণমূলের মদত রয়েছে। রাজ্য নেতৃত্বর সাথে কথা বলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে জেলা বিজেপির সভাপতি তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙ্গুল তুললেও এদিন সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো বলেন, “তৃণমূল অন্য কোন দলের বিষয়ে নাক গলাতে যাবে কেন! আসলে বিজেপি এখন সবকিছুতেই তৃণমূলের ভূত দেখতে পাচ্ছে। নিজেদের দলের কর্মীদের ঠিক করতে না পেরে এখন আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে।” সব মিলিয়ে লোকসভা ভোটের আগে পুরুলিয়া জেলা বিজেপিতে তৈরি হল প্রবল কোন্দল।

Top
error: Content is protected !!