এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যা তৃণমূলে যোগ দিতেই বিস্ফোরক অভিযোগ গেরুয়া শিবিরের

বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যা তৃণমূলে যোগ দিতেই বিস্ফোরক অভিযোগ গেরুয়া শিবিরের

রাজ্য রাজনীতিতে এখন দুই প্রধান যুযুধান পক্ষ হল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি। অন্যান্য দল থেকে দলবদল করে এই দুই দলে নেতা-কর্মীদের যোগদান তো লেগেই আছে। কিন্তু, তার সাথেই যোগ হয়েছে এই দুই দলের একে অপরের দল ভাঙ্গানো। যদিও, গেরুয়া শিবিরের বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দাবি – তাদের কর্মীদের ভয় দেখিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস জোর করে যোগদানে বাধ্য করছে।

সেই একই ধারা অব্যাহত মালদাহেও। গত রবিবার মালদহের গাজোলের সালাইডাঙ্গায় বিজেপি ছেড়ে এক পঞ্চায়েত সদস্যা, কৌশল্যা সরকার নিজের অনুগামীদের নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন বলে সূত্রের খবর। শাসকদলে যোগদান করে তিনি জানান, এলাকায় বেশি করে কাজ করব বলে তৃণমূলে এসেছি।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে জেলা বিজেপির বক্তব্য, কৌশল্যাদেবীর স্বামী সিভিক ভলান্টিয়ার হিসাবে কাজ করেন। চাকরি থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হবে বলে ভয় দেখিয়ে তাঁকে ক্রমাগত চাপ দেওয়া হতো। সেই চাপ থেকেই তিনি দলবদলের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন। তবে এভাবে জোর করে দলবদল করিয়ে কোন লাভ হবে না – আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মানুষই এর জবাব দেবে।

যদিও কৌশল্যাদেবীকে দলবদল করিয়ে তাঁর হাতে ঘাসফুলের পতাকা তুলে দেওয়া গাজোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস নেতা রণজিৎ বিশ্বাস বিজেপির তোলা দাবি উড়িয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সালাইডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের এক বিজেপি পঞ্চায়েত সদস্য তৃণমূলের উন্নয়নে শামিল হতে যোগদান করেছেন। আমরা তাঁকে স্বাগত জানিয়েছি। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে দলবদলের আবহে জমে উঠেছে মালদহের রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!