এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরভোটে বিজেপিকে ধুয়েমুছে সাফ করে দিতে পুজো মিটলেই কোমর বেঁধে আসরে নামছে তৃণমূল

পুরভোটে বিজেপিকে ধুয়েমুছে সাফ করে দিতে পুজো মিটলেই কোমর বেঁধে আসরে নামছে তৃণমূল

Priyo Bandhu Media


 

বীরভূম তৃণমূলের অত্যন্ত শক্ত ঘাঁটি হিসেবেই পরিচিত। এখানকার জেলা সভাপতির নাম অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্ট। তার গর্জন, তর্জনে বিরোধীদের প্রাণ ওষ্ঠাগত বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ করতে দেখা যায় একাংশকে। কিন্তু তিনি যতই গর্জন তর্জন ছাড়ুন না কেন, সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বীরভূম জেলায় দুটি লোকসভা কেন্দ্র তৃণমূল জিতেছে ঠিকই। তবে তাতে যেমন মার্জিন কমেছে, ঠিক তেমনই অনেক জায়গাতেই বিজেপির ভোটবৃদ্ধি অস্বস্তিতে ফেলেছে শাসকদলকে।

কিন্তু সামনেই পৌরসভা নির্বাচন। আর তাই সেই পৌরসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এখন থেকেই ঝাঁপাতে চাইছে তৃনমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, শুক্রবার সন্ধ্যায় বোলপুরে জেলা তৃণমূলের কার্যালয়ে অনুব্রত মণ্ডলের উপস্থিতিতে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আজ সেখানেই কালীপুজো সমাপ্ত হওয়ার সাথে সাথেই যাতে সকলে ভোটার তালিকায় নজর দেওয়ার পাশাপাশি জনসংযোগে সামিল হন, তাঁর নির্দেশ দেওয়া হয়।

বস্তুত, আগামী 25 নভেম্বর থেকে রাজ্যের প্রতিটি জেলায় ভোটার তালিকা সংশোধন এবং বিয়োজনের কাজ শুরু হচ্ছে। যা আগামী 24 ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। আর তাই দলের নেতাকর্মীরা সেই কাজে যাতে বেশি মনোযোগী হয়, তার জন্য এদিনের বৈঠকে নির্দেশ দিয়েছে তৃণমূল।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

পাশাপাশি পৌরসভা নির্বাচনের আগে জেলার সমস্ত পৌরসভায় যাতে স্বচ্ছতা সহকারে কাজকর্ম হয়, তার জন্যও এদিনের বৈঠক থেকে নির্দেশ দেওয়া হয় বলে খবর। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বীরভূমের মত তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটিতেও এবার লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির উত্থান ছিল চোখে পড়ার মত। আর তাই পৌরসভা নির্বাচনে যাতে দল ধাক্কা না খায়, তার জন্য ভোটার তালিকা সংশোধনে নজর দেওয়া ও উন্নয়নের কাজে মধ্যে দিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়ার নির্দেশ দিল তৃণমূল।

এদিন এই প্রসঙ্গে বীরভূম জেলা তৃনমূলের সহ-সভাপতি অভিজিৎ সিংহ বলেন, “পুরভোটের প্রস্তুতির সঙ্গে এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ভোটার তালিকার কাজেও মানুষকে সাহায্য করার জন্য বলা হয়েছে।” তবে এই সমস্ত কিছু যে আগামী পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত প্রায় সকলেই। তাই এখন আগামী পৌরসভা নির্বাচনে বীরভূমে তৃণমূল ঠিক কতটা সাফল্য পায়, সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!