এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কত আসন পাচ্ছে বিজেপি তৃতীয় দফার ভোটের শেষে ,বড়সড় দাবি মুকুল রায়ের

কত আসন পাচ্ছে বিজেপি তৃতীয় দফার ভোটের শেষে ,বড়সড় দাবি মুকুল রায়ের

রাজ্যে সদ্য শেষ হয়েছে তৃতীয় দফার ভোট। আর এর পরেই কত আসন পাচ্ছে বিজেপি তা নিয়েই মুখ খুললেন বিজিপি নেতা মুকুল রায়।

রাজ্যে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছে মুকুল রায়। আর তার পরেই একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন প্রাক্তন দল ও দলনেত্রীর বিরুদ্ধে। সাথেই বার বার দাবি করেছেন যে তৃণমূল দলটাই আর থাকবে না। প্রসঙ্গত, সে দাবি এখনো অব্যাহত। প্রাক্তন দলকে ভাঙিয়ে বিজেপির ঘর ভড়িয়েছেন তিনি পাশাপাশি পঞ্চায়েত নির্বাচনের অগ্নিপরীক্ষাতেও উত্তীর্ণ হয়েছেন। এবার লক্ষ্য হলো লোকসভা ভোট।

আর প্রথম দু দফার ভোটের পর গতকাল সমাপ্ত হয়েছে তৃতীয় দফার ভোট। আর তার পরেই মুকুল রায় এই নিয়ে মুখ খুললেন।তৃতীয় দফার ভোটের শেষে কতগুলি আসন পাচ্ছে বিজেপি। সেই নিয়ে আশাবাদী মুকুলবাবু জানান যে, যা ভোট হয়েছে তাতে বিজেপি এখনো পর্যন্ত ১০ টি আসনের মধ্যে ৭ টি আসন পাচ্ছে বিজেপি।

আর এই নিয়েই বিজেপি কর্মী সমর্থকরা বেজায় খুশি। তাদের মতে সত্যিই তৃণমূল ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাচ্ছে। কেননা যদি ৭ টি আসন পায় বিজেপি তবে পরে থাকছে শুধুমাত্র ৩ টি। আর মুকুলবাবু বলে নি যে বাকি গুলো তৃণমূল-ই পাচ্ছে হতেও পারে যে বাকিগুলো অন্য দল পাবে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই নিয়ে তৃণমূল শিবিরে উঠেছে হাসির রোল। কেননা তাদের মতে মুকুল রায় বিজেপিকে নিয়ে যা দাবি করছে তা হাস্যকৌতুক ছাড়া আর কিছু নয়। বিজেপি এবারে ১ টার বেশি আসন পাবে কিনা সন্দেহ। ফলে জোর কটাক্ষ ” আশায় বাঁচে চাষা” সাথেই তাদের দাবি যে তৃণমূল ৪২ সে ৪২ টি আসনে জিতবে আর তাদের দিদিই দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন। রাজ্যে তো দূর দেশেও কোথাও বিজেপির নাম নিশানা থাকবে না।

অন্যদিকে রাজনৈতিকমহলের দাবি ,মুকুল রায়ের কাছে এটাও আর একটা অগ্নিপরীক্ষা আর তাতে উত্তীর্ণ হতে নিজের সর্বস্ব দিয়ে তিনি ঝাঁপাচ্ছেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। আর তৃণমূলে থাকাকালীন তিনিই নিজের হাতে নির্বাচন করিয়েছেন এতদিন। ফলে অভিজ্ঞাতাও এমন কিছু কম নয়। তাই তার দাবি পুরো না হলেও ফেলে দেবার মতো নয়। ফলে যাই হোক কার দাবি সঠিক তা বোঝা যাবে কেবলমাত্র ২৩ সে মে ভোটের বাক্স খোলার পর। অতএব ততদিন শুধুমাত্র অপেক্ষা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!