এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > কুশমুন্ডির সংখ্যালঘু পরিবারকে শারদীয়ার সেরা উপহার দিলেন বিজেপি সাংসদ! কুর্নিশ জানাবেন আপনিও

কুশমুন্ডির সংখ্যালঘু পরিবারকে শারদীয়ার সেরা উপহার দিলেন বিজেপি সাংসদ! কুর্নিশ জানাবেন আপনিও

শারদীয়ার মাসে যদি ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে আসে, তাও আবার বিপদসংকুল অবস্থা কাটিয়ে – তাহলে তার থেকে খুশির খবর আর কিছুই বোধহয় হতে পারে না। আর এই খুশি কুশমন্ডির সংখ্যালঘু পরিবারকে দিয়েছেন বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। রাজনীতীর রং না দেখে, ধর্মীয় রং না দেখে তিনি যে উপকার করেছেন তা এক কথায় অতুলনীয় – বলে দাবি স্থানীয়দের।

বর্তমানে সবকিছুই রাজনৈতিক দাড়িপাল্লায় মাপার পরে কাজ হয়। কিন্তু এর বাইরেও এক অনন্য উদাহরণ প্রতিস্থাপন করলেন বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। তাঁর হাত ধরেই ঘরে ফিরলেন কুশমন্ডির যুবক নুর আলম। দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডি মালিগাঁও গ্রাম পঞ্চায়েতের দুর্গাপুরের যুবক নুর আলম মালয়েশিয়ায় কর্মসূত্রে গিয়েছিলেন 3 মাস আগে। তিন মাস পর তার পাসপোর্টটি বৈধতা হারায় এবং এর পরেই তাকে মালয়েশিয়া পুলিশ গ্রেফতার করে জেলে পাঠায়।

এদিকে ছেলে জেলে থাকার খবর পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় তার পরিবার দরবার শুরু করেন ছেলেকে ফেরানোর জন্য – কিন্তু সাড়া মেলেনি। অবশেষে নুরের মা বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার এর দ্বারস্থ হন। আর এরপরেই সুকান্ত মজুমদার যোগাযোগ করেন কেন্দ্রের বিদেশমন্ত্রকের সাথে। সাথে সাথেই কাজ শুরু হয়, অবশেষে এক মাসের চেষ্টায় নুর আলম ঘরে ফিরতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই, টানা তিন মাস চরম উৎকণ্ঠায় দিন কাটিয়েছে নুরের পরিবার।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

অবশেষে বিদেশ থেকে মুক্তি নিয়ে দেশের মাটিতে পা রাখল দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডির যুবক নুর আলম। মঙ্গলবার রাতে কুয়ালালামপুর থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে নামেন নুর। সমস্ত ঘটনাটির জন্য নুর এবং নুরের পরিবারের প্রত‍্যেকেই ধন‍্যবাদ জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারকে। নুর জানিয়েছেন, তাঁর ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর সে এক দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে। ভিসার মেয়াদ বাড়েনা এবং সে জেলে পৌঁছে যায়।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সাংসদ সুকান্ত মজুমদার জানান, পাসপোর্ট ল্যাপ্স হওয়ার কারণে গ্রেপ্তার হয় নুর মালয়েশিয়া পুলিশের হাতে। নুরের মা তাঁর কাছে আসেন এবং পুরো ঘটনার বর্ণনা করেন। এরপর তিনি বালুরঘাটের সাংসদের কাছে নুরকে ফেরানোর আর্জি জানান। আর এর পরেই সুকান্তবাবু বিদেশমন্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করেন এবং বিদেশমন্ত্রকের তৎপরতার ফলে মালয়েশিয়ায় যোগাযোগ হয় এবং সেখান থেকেই নুরকে ফেরত পাঠানো হয়।

ঘরের ছেলে কাজের সন্ধানে বিদেশে গিয়ে কোনো দশ না করেও জেল খাটছে! পরিবারের লোক চেয়েও সাহায্য করতে পারছে না – স্বাভাবিকভাবেই এবারের শারোদৎসবের আবহ নূরের পরিবারের কাছে কার্যত দুঃসহ হয়ে উঠেছিল। কিন্তু, সেই পরিবারের সমস্ত উৎকন্ঠা কাটিয়ে অবশেষে ঘরের ছেলেকে ঘরে ফিরিয়ে দিলেন বালুরঘাটের নব্য সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। স্বাভাবিকভাবেই, সুকান্তবাবুর কাছে শারদীয়ার এই ‘শ্রেষ্ঠ উপহার’ পেয়ে আপ্লুত নূরের পরিবার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!