এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > এবার শুভেন্দু-গড়ে তৃণমূলের প্রাক্তন চেয়ারম্যানকে ছিনিয়ে নিয়ে পুরসভা দখলের পথে বিজেপি

এবার শুভেন্দু-গড়ে তৃণমূলের প্রাক্তন চেয়ারম্যানকে ছিনিয়ে নিয়ে পুরসভা দখলের পথে বিজেপি

গতকাল রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর গড় বলে পরিচিত রামজীবনপুরে তৃণমূলের প্রাক্তন পুরসভার চেয়ারম্যান যোগ দিলেন গেরুয়া শিবিরে। ফলে রাজ্যের আরও একটি পৌরসভা গেরুয়া শিবিরের দখলে আসতে চলেছে বলে জল্পনা ছড়িয়েছে তীব্রভাবে। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে গোটা রাজ্যে গেরুয়া শিবির দুর্দান্ত ফলাফল করলেও, পূর্ব মেদিনীপুরের লোকসভা আসন দুটি ধরে রাখে তৃণমূল কংগ্রেস।

বলা ভালো এই দুই আসনের অধিকার থাকে অধিকারী পরিবারের হাতে। কিন্তু, এই দুই আসনে বিজেপি হেরে গেলেও, তাদের ভোট বৃদ্ধি রীতিমত চমকে দেয় রাজনৈতিক মহলকে। আর তারপর থেকেই তৃণমূল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানো ধুম পড়ে গেছে শুভেন্দু-গড়েই। আর এবার ঘাসফুল শিবির ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে যোগদান করলেন রামজীবনপুর পৌরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর শিবরাম দাস।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, তিনি এক সময় ওই পুরসভার চেয়ারম্যানও ছিলেন। আর এই দলবদলের ফলেই এবার রামজীবনপুর পৌরসভা গেরুয়া শিবিরের হাতে আসতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কেননা ওই পুরসভায় মোট 11 টি আসন আছে – যার মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে ছিল 6 টি আসন এবং বিজেপি ও তার সহযোগী দলগুলোর হাতে ছিল পাঁচটি আসন। শিবরামবাবু গেরুয়া শিবিরের নাম লেখানোয়, বর্তমানে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বৃদ্ধি পেয়ে হল ৬। ফলে, জল্পনা ছড়িয়েছে এবার ওই পুরসভায় অনাস্থা আনতে পারে গেরুয়া শিবির।

যদিও এই নিয়ে একদমই ভাবিত নন বর্তমান পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্মল চৌধুরী। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, লোকসভা নির্বাচনের পরে অনেকে বিজেপিতে যোগ দিলেও, পরে আবার তৃণমূলে ফেরত এসেছে। সুতরাং এই পুরসভা ধরে রাখার ব্যাপারে তিনি একদমই চিন্তিত নন। অন্যদিকে স্থানীয় গেরুয়া শিবিরের নেতৃত্ব জানিয়েছেন, খুব শীঘ্রই রামজীবনপুর পৌরসভার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অবস্থান আনবেন তারা। সব মিলিয়ে শুভেন্দু-গড়ে গেরুয়া শিবির কিন্তু ক্রমশ শক্তি বৃদ্ধির স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top