এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপি-বামফ্রন্ট-কংগ্রেস মহাজোটে এবার মাওবাদীদেরও জুড়ে দিলেন তৃণমূল নেতা

বিজেপি-বামফ্রন্ট-কংগ্রেস মহাজোটে এবার মাওবাদীদেরও জুড়ে দিলেন তৃণমূল নেতা

পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফলকে কেন্দ্র করে রাজ্যের সমস্ত দলগুলির পারস্পরিক দোষারোপের ঘটনা নতুন নয়। এবারও রাজ্যের রাজনৈতিক বাতাবরণকে উত্তপ্ত করতে সক্রিয় ভূমিকা নিল তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি অরূপ খাঁর মন্তব্য। তিনি জানালেন জঙ্গলমহলের আদিবাসী মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিশ্বাস করেন বলেই গত পঞ্চায়েত ভোটের থেকেও শাসকদল ওখানে বেশি আসন পেয়েছে। যদিও এর মধ্যে তৃণমূলের দাপট চলতো যেসব এলাকায় সেখানে কীকরে গেরুয়া ঝান্ডা উড়লো? এ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন বাঁকুড়া জেলার তৃণমূল সভাপতি। তিনি জানালেন, ”সিপিএম, বিজেপি, কংগ্রেস এক হয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করেছে। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে মাওবাদী।” বিজেপির জয় প্রসঙ্গে ‘মাওবাদী’ যোগসূত্র স্থাপন করে নতুনভাবে বিতর্ক তৈরি করলেন তিনি। এছাড়া জানালেনও পরবর্তী লোকসভা ভোটে তৃণমূলের সামনে টিকতে পারবে কোনো বিরোধী দলই।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা যাচ্ছে, তৃণমূল জেলা সভাপতির মন্তব্যের জেরে প্রতিবাদে সরব হন বিরোধীমহলের সবাই। বামেদের অভিযোগ যে দক্ষিণ বাঁকুড়া সহ পশ্চিমবঙ্গের মাওবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা প্রত্যেকেই আজ তৃণমূলের সৌজন্যে পূণর্বাসন পেয়েছে। তাদের অসংখ্য নেতা কর্মী খুনে যুক্ত মাওবাদীরা আজ কেউ সিভিক ভল্যান্টিয়ারে চাকরি পেয়েছে। তো কেউ তৃণমূলের ব্লক সভাপতি হয়েছে। আবার কিছু না হলেও তাকে পঞ্চায়েত ভোটে প্রার্থী করেছে। অন্যদিকে বিজেপির দাবি যে  সন্ত্রাসের রাজনীতি চালিয়েও জঙ্গলমহলের বেশ কিছু জায়গায় জিততে পারেনি শাসকদল। তিনি জানান যে কিষেনজী,ছত্রধর মাহাতোর পরিনতির বিষয়ে কারোর জানতে আর বাকি নেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!