এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > বিজেপির ভরা বাজারে এখনও তিনিই তৃণমূলের ‘ভরসা’ আবার প্রমান করলেন শুভেন্দু অধিকারী

বিজেপির ভরা বাজারে এখনও তিনিই তৃণমূলের ‘ভরসা’ আবার প্রমান করলেন শুভেন্দু অধিকারী

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার আগের দিন পর্যন্ত বেশ তুরীয় মেজাজে ছিলেন তৃণমূলের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। কেননা, তাঁদের দলনেত্রী খোদ ৪২ এ ৪২ করে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। বেশ কিছু প্রথম শ্রেণীর সংবাদমাধ্যম ইঙ্গিত দিয়েছে বিজেপির ভোট বাড়লেও শেষ হাসি হাসবে তৃণমূলই। ফলে নাকি ৪২ এ ৪২ না হলেও ২০১৪ এর থেকে বাড়বে আসন!

আর, এইসব অলীক কল্পনার মাঝে কখন পায়ের তলা থেকে মাটিটাই সরে গেছে টের পান নি ঘাসফুল শিবিরের নেতা-কর্মীরা। ফলে ২৩ তারিখ ইভিএম খুলতেই, রীতিমত চোখে সর্ষেফুল দেখার অবস্থা তাঁদের। তা আরও সঙ্গিন হতে পারত, অন্তত ৮ টি আসনে ‘ভোট কেটে’ বাঁচিয়ে দিয়েছে একদা চরম শত্রু বামফ্রন্ট। অবস্থা এতটাই সঙ্গিন, দুদিন কালীঘাটের বাড়ি থেকেই বেরোননি স্বয়ং দলনেত্রী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

আর দুদিন বাদে রীতিমত সাংবাদিক বৈঠক ডেকে তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন, দীর্ঘদিন ধরেই যে কথাটা বোধহয় ঘাসফুল শিবিরের তৃণমূল স্তরের প্রায় সমস্ত কর্মীরা যে কথাটা শুনতে চাইছিলেন, সেই কথাটা। অর্থাৎ ‘আত্মীয়তার’ কথা ভুলে, ‘যোগ্যতার’ ভিত্তিতে দলের সব থেকে ‘এফিসিয়েন্ট’ নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে বাড়তি গুরুত্ব, বাড়তি দায়িত্ব। আর নেত্রীর কাছে সেই বাড়তি সম্মান পেয়েই, বিজেপির ভরা বাজারেও নিজের ‘ম্যাজিক’ অব্যাহত রেখেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

২৩ তারিখের পর, রাজ্যের বিভিন্ন কোনায় বেশ বড়সড় ভাঙন ধরেছে তৃণমূলে – দল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোর রীতিমত হিড়িক পরে গেছে। এইভাবে চলতে থাকলে বিধানসভা নির্বাচনে লড়া হবে কি করে? সে কথা ভেবেই যখন অস্থির তৃণমূলীরা, ঠিক তখনই অভিমান নিয়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানো নেতা-কর্মীদের মানেভঞ্জন করে ‘ঘর ওয়াপসি’ করিয়ে যাচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে, বিজেপির এই সুদিনেও বিজেপির ঘর ভাঙছেন তিনি।

গতকালও তাঁর হাত ধরে আবার ঘটল এমনই ‘ম্যাজিক’ – যা শহীদ দিবসের আগে রীতিমত স্বস্তি দিচ্ছে শাসক শিবিরকে। সূত্রের খবর, গড়বেতার ধ্যাদিকা থেকে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা তুলে নিলেন কয়েক শ বিজেপি নেতা-কর্মী। তাঁদের হাতে ঘাসফুল শিবিরের পতাকা তুলে দিয়ে দলে সাদরে বরণ করে নিলেন দলীয় পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের পরিবহন, জলসম্পদ, উন্নয়ন ও সেচ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তিনি যে এখনও দলীয় কর্মীদের বড়সড় ভরসার জায়গা আবারো প্রমান করলেন তৃণমূলের ‘নয়ন মনি’ শুভেন্দু অধিকারী।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!