এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শোকস্তব্ধ দুলাল কুমারের পরিবারের পাশে মুকুল-সায়ন্তন-লকেট সহ গোটা বিজেপি জেলা নেতৃত্ত্ব

শোকস্তব্ধ দুলাল কুমারের পরিবারের পাশে মুকুল-সায়ন্তন-লকেট সহ গোটা বিজেপি জেলা নেতৃত্ত্ব

গতকাল সকালে পুরুলিয়ায় স্থানীয় বিজেপি দলিত নেতা দুলাল কুমারের ঝুলন্ত মৃতদেহ আবিষ্কার হয়। তৎকালীন পুলিশ সুপার জয় বিশ্বাস মৃতদেহ ময়নাতদন্তের আগেই জানিয়ে দেন যে দুলাল কুমার আত্মহত্যা করেছেন। মানতে চায় নি দুলাল কুমারের পরিবার, মানতে চায় নি স্থানীয় অধিবাসীরা। শেষে বহুকষ্টে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে দুপুর ২ তো নাগাদ দুলাল কুমারের মৃতদেহ উদ্ধার করে তা ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। কিন্তু ততক্ষনে দুলাল কুমারের পরিবার তো বটেই, বিজেপি নেতৃত্ত্বও দাবি জানাতে শুরু করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে খুন হয়েছেন দুলালবাবু, আর তা ধামাচাপা দিতেই পুলিশ সুপার ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে চালাতে চাইছেন। চাপের মুখে তড়িঘড়ি নবান্ন পুলিশ সুপারের পদ থেকে সরিয়ে দেয় জয় বিশ্বাসকে, নতুন দায়িত্ত্ব দেওয়া হয় আকাশ মেঘারিয়াকে।

নতুন দায়িত্ত্ব পেয়েই আজ সাংবাদিক বৈঠক ডেকে পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার জানিয়ে দেন, তাঁর হাতে এসেছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট, আর সেই রিপোর্ট অনুযায়ী দুলাল কুমার আত্মহত্যাই করেছেন বলে জানা যাচ্ছে। অন্যদিকে রাজ্যের তরফে এই ঘটনার তদন্তভার তুলে দেওয়া হয়েছে সিআইডির হাতে। কিন্তু বিজেপি নেতৃত্ত্ব দাবি জানিয়েছে সিবিআই তদন্তের। কাল দুপুরেই পুরুলিয়া ছুটে যান বিজেপি নেতা মুকুল রায়। রাত্রের দিকে তিনি গিয়ে মৃত দুলালবাবুর পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন। অন্যদিকে গতকাল রাত্রে পুরুলিয়া পৌঁছান পুরুলিয়ায় বিজেপির জেলা পর্যবেক্ষক সায়ন্তন বসু। আজ সকালে সেখানে যান বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। তারপর দুজনেই জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী ও অন্যান্য স্থানীয় নেতৃত্ত্বকে নিয়ে দেখা করেন শোকস্তব্ধ দুলাল কুমারের পরিবারের সঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে সর্বতভাবে মৃত দুলাল কুমারের পরিবারের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছেন। অন্যদিকে, তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন একটি আত্মহত্যার ঘটনাকে খুন বলে রাজনীতি করছে বিজেপি। এই ঘটনায় তৃণমূলের নাম জড়ানোয়, কিছু সংবাদমাধ্যম ও সংশ্লিষ্ট অপপ্রচারকারী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দল হিসাবে তৃণমূল কংগ্রেস মানহানির মামলা করবে এবং প্রশাসনকেও এঁদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে বলা হবে। কিন্তু পার্থবাবুর এই ঘোষণার পরেও নিজের অবস্থান থেকে পিছু হঠার কোনো কথা এখনো জানায়নি দুলালবাবুর পরিবার বা বিজেপি-নেতৃত্ত্ব।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!