এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির প্রতিবাদ করায় বিজেপি নেতাকে প্রাণে মারার হুমকি তৃণমূলের

নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির প্রতিবাদ করায় বিজেপি নেতাকে প্রাণে মারার হুমকি তৃণমূলের

Priyo Bandhu Media

 

একসময় বিগত বাম সরকারের আমলে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ তুলে সরব হতে দেখা যেত তৎকালীন বিরোধী দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর আশ্চর্যজনকভাবে তখন বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিবাদ করলেই বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করা হত বলে বামেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলত তৃণমূল। কিন্তু এখন সময় অনেক বদলেছে।

বামেদের সরিয়ে ক্ষমতায় বসেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর তৃণমূল ক্ষমতায় বসার পরই সকলে বলেছিলেন, এবার হয়ত বাংলা গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরে পাবে। কিন্তু না, বামেদের আমলের যে অভিযোগ তৃণমূলের পক্ষ থেকে করা হত, ঠিক তেমনই তৃণমূলের আমলে সেই একই অভিযোগ করা হচ্ছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

অনিয়ম, অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেই বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে বলে বিভিন্ন ক্ষেত্রে দাবি তুলে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা যাচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টিকে। আর এবার নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির প্রতিবাদ করায় বিজেপি নেতাকে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

 

জানা গেছে, ব্যারাকপুর 2 নম্বর ব্লকের টিটাগর থানার শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের সেলামপুর গ্রামে একটি ঢালাই রাস্তা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। তবে এই রাস্তা তৈরি থেকেই এলাকাবাসীদের তরফ থেকে অভিযোগ তোলা হয় যে, রাস্তার কাজের জন্য মিহিদানার বালি আনা হয়েছে। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে এই রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে।

এদিকে এদিন সেই রাস্তা তৈরীর কাজ দেখতে আসেন ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলা বিজেপির নেতা অলোক জানা। কেন এইভাবে সিডিউল না মেনে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করা হচ্ছে, তার ব্যাপারে সরব হন এই বিজেপি নেতা। আর এতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান অরুণ কুমার ঘোষের নেতৃত্বে বেশকিছু তৃণমূল কর্মী। অভিযোগ, সেই সময় বিজেপি নেতা অলোক জানাকে তারা হেনস্থা এবং মারধর করেন। পাশাপাশি অলোকবাবুকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা অলোক জানা বলেন, “মোটা দানার বালি ছাড়া ঢালাই কি করে সম্ভব! তাছাড়া 3 ইঞ্চি ঢালাই হওয়ার কথা থাকলেও মাত্র এক থেকে দুই ইঞ্চি পুরু ঢালাই করা হচ্ছে। এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় প্রধানের নেতৃত্বে তৃণমূল কর্মীরা এসে আমার ওপর হামলা চালায়। আমাকে মারধর করা হয়। খুনের হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে।”

কিন্তু অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেই কেন এভাবে তৃণমূলের রোষের মুখে পড়তে হবে! এদিন এই প্রসঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অরুণকুমার ঘোষ। এদিন তিনি বলেন, “এলাকার উন্নয়ন স্তব্ধ করতেই রাস্তার কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। আমি খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। সিডিউল মেনে ওখানে কাজ হচ্ছে। ভুলবশত ঠিকাদার মোটা বালির পরিবর্তে মিহিদানা নিয়ে গিয়েছিল। সেই বালি ফেরত দেওয়া হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে মারধর এবং খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ভিত্তিহীন। আসলে ওনারা মিথ্যা প্রচার করে এলাকাবাসীকে বিভ্রান্ত করতে চাইছেন।”

কিন্তু তৃণমূলের প্রধান যে কথাই বলুন না কেন, তিনি কার্যত একপ্রকার স্বীকার করে নিলেন নিম্নমানের কাজ হচ্ছে বলে মত বিশ্লেষকদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!