এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > এবার “চাপমানি” ফেরতের দাবিতে পাল্টা বিজেপি নেতার বাড়ির সামনে ধর্নায় তৃণমূল!

এবার “চাপমানি” ফেরতের দাবিতে পাল্টা বিজেপি নেতার বাড়ির সামনে ধর্নায় তৃণমূল!

লোকসভা ভোটের বিপর্যয়ের পর তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের “কাটমানি ফেরতের” ঘোষণায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছিল রাজ্য রাজনীতিতে। বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, তৃণমূলের কাছে সব থেকে বেশি কাটমানি রয়েছে। পাল্টা বিজেপির বিরুদ্ধে “ব্ল্যাকমানি” নেওয়ার অভিযোগ করেছিল রাজ্যের শাসক দল। আর কাটমানি বনাম ব্ল্যাকমানির এই যুদ্ধের মাঝে এবার “চাপমানি” ফেরতের দাবিতে কোচবিহারে আন্দোলনে নামতে দেখা গেল তৃণমূল কংগ্রেসকে।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার কোচবিহারের দেওয়ানহাট এলাকায় বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য শুভাশিস চৌধুরীর বাড়ির সামনে “চাপমানি” ফেরতের দাবিতে ধর্নায় বসতে দেখা যায় তৃণমূল কংগ্রেসকে। কিন্তু ঠিক কি কারণে জেলা বিজেপির নেতার বাড়ির সামনে এরকম ধরনা কর্মসূচি দিল তৃণমূল!

ঠিক কি অভিযোগ রয়েছে বিজেপির এই নেতার বিরুদ্ধে! তৃণমূলের দাবি, এলাকার বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে জোর করে 10 থেকে 12 লক্ষ টাকা নিয়েছেন বিজেপির এই নেতা। আর সেই সমস্ত টাকা আদায়ের জন্যই তার বাড়ির সামনে এদিন ধর্না দেওয়া হয়েছে। যদিও বা তৃণমূলের তরফে এই অভিযোগ তুলে ধরনা দেওয়া হলেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছে বিজেপি। আর যা নিয়ে তৃণমূল বনাম বিজেপির মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। কিন্তু চাপমানিটা ঠিক কি!

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে দেওয়ানহাটের অঞ্চল তৃণমূলের সভাপতি তাপস কুমার দে বলেন, “অন্যায় ভাবে আদায় করে টাকা ফেরতের দাবিতে আমরা এদিন ওই বিজেপি নেতার বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেছিলাম। এলাকার হতদরিদ্র মানুষের কাছ থেকে চাপ দিয়ে টাকা নেওয়া হয়েছে সেই কারণেই আমরা এই ধরনের অন্যায় কাজকে চাপমানি নাম দিয়েছি। আমার ছেলের কাছ থেকে চাপ দিয়ে দুই দফায় 7000 টাকা নেওয়া হয়েছে। এই ব্যাপারে আমরা থানায় অভিযোগ দায়ের করব।”

তবে তৃণমূলের তরফে এই অভিযোগ করা হলেও তা নিয়ে পাল্টা সরব হয়েছে গেরুয়া শিবির। এদিন এই প্রসঙ্গে নাটাবাড়ি বিধানসভার বিজেপির সংযোজক সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, “চাপমানি কেউ খেয়ে থাকলে সেটা তৃণমূল খেয়েছে। আসলে ওই জায়গা দিয়ে আমাদের গান্ধী সংকল্প যাত্রা যাওয়ার কথা রয়েছে। তার আগে পরিকল্পিতভাবে এসব করা হচ্ছে।”

কিন্তু যার বিরুদ্ধে এত অভিযোগ, সেই কোচবিহার জেলা বিজেপির নেতা শুভাশিস চৌধুরী ঠিক কি বলছেন! এদিন তিনি বলেন, “এটা তৃণমূলের নোংরা রাজনীতি। নিজেরা দুর্নীতিতে ডুবে রয়েছে, তাই বিজেপির সব নেতৃত্বের উপরে কালি ছিটিয়ে প্রচারের আলোতে আসতে চাইছে। আমার কাছে এলাকার কেউ কোনো টাকা পাননা। জনতা এসবের জবাব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে আছে।” সব মিলিয়ে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে “চাপমানি” কাণ্ডে সরগরম কোচবিহার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!