এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নিজের দলের মহিলা কর্মীর শ্লীলতাহানি ও বদনাম করার অভিযোগে গ্রেপ্তার বঙ্গ বিজেপি নেতা

নিজের দলের মহিলা কর্মীর শ্লীলতাহানি ও বদনাম করার অভিযোগে গ্রেপ্তার বঙ্গ বিজেপি নেতা

নারী, তা সে পরিচিতা হোক বা অজ্ঞাত, মানেই কি তাঁর উপর নিপীড়ন বা অহেতুক আক্রমন করা যায়? প্রশ্নটা উঠছে কারণ – এমন আচরনই নাকি পাওয়া গেছে গেরুয়া শিবিরের এক নেতার কাছ থেকে। আর যা নিয়ে দলের অন্দরেই শুরু হয়েছে ঠাণ্ডা লড়াই এবং তারফলে তীব্র ছড়িয়েছে বেলঘড়িয়া অঞ্চলে।

এদিন বিজেপির এক নেত্রীকে শারীরিক নিগ্রহ সহ তাঁর বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অশালীন মন্তব্য করে তাঁর সম্মানহানী করার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন শুভঙ্কর বসু নামে স্থানীয় এক বিজেপি নেতা। শুধু দলের একজন মহিলা সদস্যকে শারীরিকভাবে হেনস্তা বলেই নয় আরও নানা অভিযোগে ওই বিজেপি নেতা অভিযুক্ত বলেও স্থানীয় সূত্রে অভিযোগ।

যার মধ্যে রয়েছে এক সাংবাদিককে হুমকি দেওয়া ও তাঁর কাছ থেকে তোলা চাওয়ার মতো বিস্ফোরক অভিযোগও। গেরুয়া শিবিরের এক মহিলা নেত্রীর করা অভিযোগের বয়ান অনুসারে জানা যাচ্ছে শুভঙ্কর বসু বিজেপির ঐ নেত্রীকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন। স্বভাবতই তিনি সেই প্রস্তাবকে প্রশ্রয় দেননি এবং পরে একপ্রকার অনন্যপায় হয়েই তিনি ঐ নেতার কার্যকলাপ নিয়ে পরিচিত সকলের সাথে কথা বলেন পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অভিযোগ, এরপরেই শুভঙ্করবাবু নাকি নিজের ‘স্বরূপ’ অচিরেই সকলের কাছে প্রকাশিত হয়ে যাবে এমন আশঙ্কায় অভিযোগকারী নেত্রীকে বদনাম করা শুরু করেন। জনৈকা মহিলা নেত্রী এই অপমানের পর আর চুপ করে থাকেননি, এই ঘটনার জানিয়ে মহিলা কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। আর তার অল্পদিনের মধ্যেই শুভঙ্করবাবুর বিরুদ্ধে অপর এক অভিযোগ উঠে আসে।

জানা যাচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ে এলপিজি দুর্নীতি নিয়ে লেখালেখি করেছিলেন এক সাংবাদিক। শুভঙ্কর বাবু এবং দলবল হঠাৎই জনৈক সাংবাদিকের ওপরে চড়াও হন এবং তাঁকে ফোনে হুমকি দিয়ে ২ লক্ষ টাকা চাওয়া হয় বলেও ঐ সাংবাদিক অভিযোগ করেছেন। বিধাননগর দক্ষিণ থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরেই পুলিশ এই অভিযোগের তদন্তের কাজে সক্রিয় হয়ে ওঠে।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৮৭, ৩৫৪বি, ৫০৬ ও ৫০৯ ধারায় বিজেপি নেতা শুভঙ্কর বসু’র বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়। এরপরে আদালতের কাছে অভিযুক্তের পুলিশি হেফাজত চাওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য শুধু এই দুটি ঘটনা বলেই নয় এর আগেও এই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে সল্টলেকের এক বাসিন্দাকে হামলার অভিযোগ রয়েছে । বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে দলেও খুব একটা জনপ্রিয় নন শুভঙ্কর বসু, দল বিরোধী কাজের জন্য তাঁকে এর আগে সাসপেন্ডও করা হয়েছিল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!