এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য বিজেপির হেভিওয়েট নেতার, সমালোচনা সব মহলে

মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য বিজেপির হেভিওয়েট নেতার, সমালোচনা সব মহলে

বঙ্গ রাজনীতিতে কুকথার মাত্রা থামছে না কিছুতেই। কিছুদিন আগেই লোকসভা নির্বাচন সমাপ্ত হয়েছে। নির্বাচনী প্রচার চলাকালীন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল একে অপরের বিরুদ্ধে মন্তব্য করার সময় কুকথার বন্যা বইয়ে দিয়েছিল। যা নিয়ে প্রচুর সমালোচনাও হয়েছিল। তবে অনেকেই ভেবেছিলেন যে, নির্বাচনের পর্ব মিটে গেলে হয়ত বা এই কুকথার স্রোত কমবে।

কিন্তু সেই সমস্ত কিছু তো হলই না, উল্টে ফের বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে উঠে আসলেন রাজ্য বিজেপির নেতা সায়ন্তন বসু। সূত্রের খবর, এদিন উত্তর 24 পরগনার হাবরাতে উপস্থিত হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে অশালীন মন্তব্য করেন বিজেপির এই নেতা। যেখানে প্রথমে একুশে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে শিক্ষকদের অবস্থান নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাল্টা মন্তব্য করতে গিয়ে সায়ন্তন বসু বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর শিক্ষার অভাব আছে।”

অন্যদিকে তৃণমূলের ইভিএম নয় ব্যালট চাই দাবি প্রসঙ্গেও ঘাসফুল শিবিরকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি সায়ন্তন বসু। এদিন এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে শালগ্রাম শিলা বলে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “আসলে ব্যালটে ভোট হলে ওনাদের ছাপ্পা দিতে সুবিধা হবে। যেটা ইভি এমে করা সম্ভব নয়।”

আর এরপরই সমস্ত মাত্রাকে অতিক্রম করে রীতিমতো হুঁশিয়ারি সুরে সায়ন্তন বসু বলেন, “বেচাল করলে সবাইকে ঠান্ডা করে দেব। কত ঔরঙ্গজেব ঠিক করেছি, আর একটা দুটো শাহজাহানকে ঠিক করতে পারব না! কেউ চোখ দেখালে চোখ গেলে দেওয়ার ক্ষমতা আমাদের আছে। কেউ আঙ্গুল দেখালে আঙ্গুল ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতাও আমাদের আছে।” আর সায়ন্তন বসুর এই মন্তব্যেই এবার শুরু হয়েছে বিতর্ক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

অনেকেই বলছেন, যখন বিজেপি তার দলকে লোকসভা নির্বাচনের পর বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিষ্ঠা করার কথা বলছে, তখন একজন রাজনীতিবিদ হয়ে বিজেপির রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসু কেন এই ধরনের অশালীন মন্তব্য করেছেন! এতে কি দলের ভাবমূর্তি খারাপ হচ্ছে না! তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

অন্যদিকে এই ব্যাপারে বিজেপির এহেন মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস‌। তাদের বক্তব্য, ক্ষমতায় আসার আগেই যদি বিজেপি নেতারা এহেন প্রতিহিংসামূলক বক্তব্য দেন, তাহলে এরা ক্ষমতায় আসলে ঠিক কী হতে পারে! তা মানুষ এখন থেকেই প্রত্যক্ষ করতে শুরু করেছেন। সব মিলিয়ে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্য অশালীন মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়লেন বিজেপির সায়ন্তন বসু।

Top
error: Content is protected !!