এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিমানবন্দর থেকেই গ্রেপ্তার বিজেপি নেতা, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে

বিমানবন্দর থেকেই গ্রেপ্তার বিজেপি নেতা, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে

লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির পক্ষ থেকে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে তোপ দেগে অভিযোগ করা হয়েছিল যে, তাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদেরকে ফাঁসানো হচ্ছে। তবে নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর এখনও কোনো মাত্রায় উত্তেজনা কমেনি বঙ্গ রাজনীতিতে। এবার দিল্লি থেকে কলকাতা ফেরার পথে বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হলেও বিজেপি নেতা রাকেশ সিংকে।

সূত্রের খবর, কলকাতার ওয়াটগঞ্জ থানার পুলিশের পক্ষ থেকে বিজেপির এই নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। জানা যায়, এদিন পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে গ্রেফতার করতে আসলে সেই রাকেশ সিংয়ের সঙ্গে পুলিশ বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়ে। রাকেশ সিংয়ের অভিযোগ, তার ছেলে সাহেব সিংকে পুলিশ মারধর করেছে। আর তার এই গ্রেফতারের গোটা ঘটনাটিকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলেই আখ্যা দিয়েছেন এই বিজেপি নেতা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের কিছু আগে কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেন এই রাকেশ সিং। আর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সাথে সাথেই তার সাথে লেগে পরে তীব্র বিতর্ক। কিছুদিন আগেই বিদ্যাসাগর কলেজে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় তিনি একটি ভিডিও পোস্ট করলে এবং তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হলে তাতে এই বিজেপি নেতার নাম জড়ায়।

যদিও বা গোটা ভিডিওটা এডিট করা হয়েছে বলে দাবি করেন রাকেশ সিং। তবে এবার পুলিশের পক্ষ থেকে পুরনো একটি মামলার ভিত্তিতে এই বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করায় রাজ্য রাজনীতিতে তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল। বিজেপির দাবি, লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি হয়েছে। আর তাই এখন বিজেপি নেতা কর্মীদের কণ্ঠরোধ করতেই তাদের নামে মিথ্যে মামলা সাজিয়ে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি, আইন আইনের পথেই চলবে। সব মিলিয়ে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর বিজেপি নেতা রাকেশ সিং গ্রেপ্তার হওয়ায় রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!