এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ‘বেআইনি’ কাজে বাধা দেওয়ায় তৃণমূল কর্মীকে মারধরের অভিযোগ বিজেপি প্রধানের বিরুদ্ধে

‘বেআইনি’ কাজে বাধা দেওয়ায় তৃণমূল কর্মীকে মারধরের অভিযোগ বিজেপি প্রধানের বিরুদ্ধে

এ যেন উলোট-পুরান! এতদিন বিজেপি সহ অন্যান্য বিরোধীরা যে অভিযোগ করত রাজ্যের শাসকদলের নেতাদের বিরুদ্ধে – এবার সেই অভিযোগই পাল্টা এল গেরুয়া শিবিরের পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে। বিজেপি পঞ্চায়েত প্রধানের ‘বেআইনি’ কাজের প্রতিবাদ করে বাধা দেওয়ায় তৃণমূল কর্মীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গা থানার নুরনগর এলাকায়। স্থানীয় সূত্রের খবর, তাপস চক্রবর্তী নামে এক তৃণমূল কর্মীর জমির উপর দিয়ে বিনা অনুমতিতেই ‘বেআইনিভাবে’ নর্দমা তৈরী করছিলেন পঞ্চায়েত প্রধান ও বিজেপি নেতা তরুণকান্তি ঘোষ। রীতিমত মাটি কাটার যন্ত্র নিয়ে এসে তাপসবাবুর জায়গায় মাটি ও গাছ কাটা শুরু করেন তিনি।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ফলে স্বাভাবিকভাবেই, বাধা দিতে যান তাপসবাবু। সেখান থেকেই শুরু হয় কথা কাটাকাটি, এরপরেই নাকি তাপসবাবুকে বেধড়ক পেটাতে শুরু করেন তরুণবাবু বলে তাপসবাবুর পরিবারের অনুযোগ। মার্ খাওয়ার পর তাপসবাবুর অবস্থা এতটাই খারাপ হয় যে তাঁকে স্থানীয় বিশ্বনাথপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করতে হয়। এরপরেই দেগঙ্গা থানায় বিজেপি নেতা তরুণবাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়, যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পঞ্চায়েত প্রধান তরুণকান্তি ঘোষ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!