এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপিকে রুখতে ‘যুবরাজকে’ সামনে রেখেই বিভিন্ন নেতাকে দায়িত্ব তৃনমূল নেত্রীর

বিজেপিকে রুখতে ‘যুবরাজকে’ সামনে রেখেই বিভিন্ন নেতাকে দায়িত্ব তৃনমূল নেত্রীর

সামনেই লোকসভা ভোট। আর এই লোকসভা ভোটে দলকে জেতাতে হলে এখন থেকে নিজেদের আরও শক্তিশালী করা প্রয়োজন। তাই কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে সরাতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তৃনমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবার দলের সাংগঠনিক দিকেও কিছুটা নজর দিলেন। সূত্রের খবর, গতকাল সন্ধ্যায় তৃনমূল ভবনে অনুষ্টিত এক কোর কমিটির বৈঠকে দলের সাংগঠনিক এবং রাজনৈতিক কর্মসূচীর একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত ঘোষনা করলেন তিনি। পাশাপাশি দলের পূর্বঘোষিত কর্মসূচী মোতাবেক আগামী 19 জানুয়ারী যে ব্রিগেড সমাবেশ রয়েছে, তার আগাম প্রস্তুতি হিসাবে এদিন একটি কমিটিও তৈরি চরে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর যেই কমিটিতে উজ্জ্বল উপস্থিতি রয়েছে তৃনমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তবে এখানে রয়েছেন শুভেন্দু অধিকারীও।

অন্যদিকে এদিনের এই কোর কমিটির সভা থেকে দক্ষিন 24 পরগনার জেলা সভাপতি থেকে রাজ্যের দমকল মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়কে সরিয়ে সেখানে আনা হয় শুভাশিষ চক্রবর্তীকে। এদিন দলীয় নেতাদের নিয়ে এক বৈঠকের পর এক সাংবাদিক বৈঠকে তৃনমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগামী লোকসভা ভোটে এরাজ্য থেকে বিজেপি যাতে একটিও আসন না পায় তার কারনে এখন থেকেই প্রস্তুতি শুরু করতে হবে।” অন্যদিকে দেশজুড়ে বিজেপি বিরোধীতায় যে মহাজোট তৈরি হয়েছে তার জন্য সব বিজেপি বিরোধী দলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিরোধী ঐক্যে কোনো দলকেই ছোটো করে দেখা হবে না।”

এমনকী রাজ্যে বামেদের সাথে তৃনমূলের লড়াই থাকলেও সাম্প্রদায়িক শক্তিকে সরাতে 19 জানুয়ারী যে ব্রিগেড সমাবেশ রয়েছে সেখানে বামশাসিত কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনরাই বিজয়নকেও ডাকা হবে বলে জানান তৃনমূলের সর্বাধিনায়িকা। পাশাপাশি এই কর্মসূচীতে বাম শরিক দল আরএসপি এবং ফরওয়ার্ড ব্লককেও রাখতে চান বলে খবর তৃনমূল সূত্রে। তবে দেশে বিজেপিকে সরাতে যখন সমস্ত বিরোধী দলকে একজোট করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক তখনই উত্তরপ্রদেশে মায়াবতী এবং কংগ্রেসের মধ্যে বিবাদ তো অনৈক্যেরই বার্তাকে তীব্র করে তুলছে! এদিন এই প্রশ্নের উত্তরে কৌশলী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ওটা ওই দুটো দলের ব্যাপার। মায়াবতীকে ডাকতে আমাদের কোনো অসুবিধে নেই।”

এমনকী শারদোৎসবে এই রাজ্যে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এলেও তাঁকে তিনি স্বাগত জানাবেন বলে জানান তৃনমূল নেত্রী। অন্যদিকে এদিন তৃনমূলের এই কোর কমিটির বৈঠকে দলের লোকসভার সংসদীয় দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে তদন্তকারী সংস্থা ফের ডাকলে সেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আপনারা বলতে পারেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের দোষটা কি? দল তাঁর পাশে সর্বদা রয়েছে। সিবিআই ইডি দিয়ে যতই ভয় দেখাক, মানুষ বিজেপিকে প্রত্যাখ্যান করবেই।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি দেশে সুপার এমারজেন্সী চলছে বলেও এদিন গেরুয়া শিবিরকে তুলোধোনা করেন বাংলার অগ্নিকন্যা। রাজনৈতিক মহলের মতে, এদিন একদিকে যেমন কাছের শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ডানা ছাটলেন মুখ্যমন্ত্রী ঠিক তেমনি বিজেপিকে সরাতে এখন থেকেই আগামী ব্রিগেড সমাবেশের প্রস্তুতি হিসাবে দলকে প্রস্তুত করতে দলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর সমস্ত ভার দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফের প্রমান করলেন তার অবর্তমানে এই দলের ভার থাকবে যুবরাজের হাতেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!