এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শহীদ দিবসের পরের দিনেই শহীদ ‘অস্ত্রেই’ তৃণমূলকে বড় ধাক্কা দিতে বড় পদক্ষেপ বিজেপির

শহীদ দিবসের পরের দিনেই শহীদ ‘অস্ত্রেই’ তৃণমূলকে বড় ধাক্কা দিতে বড় পদক্ষেপ বিজেপির

লোকসভা নির্বাচনের সময়ে বিজেপির স্লোগান ছিল – উনিশে হাফ আর একুশে সাফ! অর্থাৎ ২০১৯ এর লোকসভা আসনে বাংলা থেকে ৪২ টির অন্তত অর্ধেক আসন জেতা, আর তারপরেই ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে জিতে বাংলার মসনদ থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে পুরোপুরি সরিয়ে দেওয়া। নিজেদের করা দাবির প্রথমাংশে রীতিমত সফল গেরুয়া শিবির। ২১ টি আসন না এলেও তৃণমূলকে চমকে দিয়ে ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়েছে বিজেপি।

আর তারপর থেকেই রাজ্যের শাসকদলের রক্তচাপ বাড়িয়ে, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ঘাসফুল শিবিরে শুরু হয়েছে ভাঙন। বলাই বাহুল্য ঘাসফুল ছেড়ে রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের স্রোত এখন গেরুয়া শিবিরমুখী। এই পরিতস্থিতিতে গতকাল ছিল তৃণমূলের বাৎসরিক কর্মসূচি – ২১ শে জুলাইয়ের শহীদ দিবস। তৃণমূল নেত্রী স্বয়ং বা তৃণমূলের শীর্ষনেতৃত্ব যতই দাবি করুন, কালকে বেশ বড়সড় জমায়েত হয়েছে – রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা কিন্তু বলছেন, ২১ সে জুলাই যে ভিড় দেখতে অভ্যস্ত কলকাতা, গতকাল তার ধারেকাছেও পৌঁছায়নি!

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই পরিস্থিতিতে, গেরুয়া শিবির আরও চাপ বাড়াতে চলেছে ঘাসফুল শিবিরের। সূত্রের খবর, শহীদ দিবসের পরের দিনেই শহীদ ‘অস্ত্রেই’ তৃণমূলকে বড় ধাক্কা দিতে বড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে রাজ্য বিজেপি। বাংলায় কিভাবে প্রতি মুহূর্তে গণতন্ত্র লঙ্ঘিত হচ্ছে বা বাংলায় বিজেপি করলে কিভাবে অত্যাচারিত-নিপীড়িত হতে হচ্ছে তা এবার কেন্দ্রের সামনে তুলে ধরতে চলেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবির সূত্রে জানা গেছে, বিজেপি করার দায়ে বাংলায় যেসব রাজনৈতিক কর্মী খুন হয়েছেন, তাঁদের পরিবারকে নিয়ে এবার দিল্লি চলেছেন বিজেপি নেতারা।

এই শহীদ পরিবারের দলে রয়েছেন মোট ৩১ টি শহীদ পরিবার। যার মধ্যে অন্যতম – পুরুলিয়ার বলরামপুরের নিহত ২ বিজেপি কর্মীর পরিবার ও উত্তর দিনাজপুরের দাড়িভিটের নিহত ২ ছাত্রের পরিবার। বিজেপি সূত্রে জানা গেছে আজ দুপুরের ট্রেনেই এই শহীদ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে দিল্লি রওনা হচ্ছেন বিজেপি নেতারা। দিল্লিতে গিয়ে প্রথমে এক দলীয় বৈঠকে যোগ দেবেন তাঁরা – যেখানে উপস্থিত থাকবেন সুষমা স্বরাজ ও দিলীপ ঘোষ।

এরপর, ৩১ টি শহীদ পরিবারের সদস্যরা দেখা করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে। সেখানে, তাঁরা তুলে ধরবেন, পশ্চিমবঙ্গে কীভাবে বিজেপি কর্মী সমর্থক ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা অত্যাচারিত হচ্ছেন বা প্রশাসন সব জেনেও কীভাবে নিশ্চুপ থাকছে – তার বিস্তারিত বর্ণনা। এছাড়াও শহীদ পরিবারগুলি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গেও দেখা করবেন। ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি নিহত বিজেপি কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের দ্রুত বিচার পাওয়ার ব্যবস্থা করতে চায় বলেও জানা গেছে। সব মিলিয়ে ‘শহীদ’ অস্ত্রে তৃণমূলের ঘুম ওড়াতে তৈরী হচ্ছে গেরুয়া শিবির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!