এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সুপ্রিম কোর্ট থেকে বৃহত্তর আন্দোলন – পঞ্চায়েতের অশান্তি নিয়ে বিশেষ নির্দেশ অমিত শাহের

সুপ্রিম কোর্ট থেকে বৃহত্তর আন্দোলন – পঞ্চায়েতের অশান্তি নিয়ে বিশেষ নির্দেশ অমিত শাহের

বঙ্গ রাজনীতিতে সরকারের প্রতি বিরোধীদের অভিযোগ যেন কিছুতেই থামছে না। পঞ্চায়েত ভোটে মনোনয়নকে ঘিরে যে অশান্তির মেঘ তৈরি হয়েছিল এবার বোর্ড গঠনেও তার প্রভাব পড়েছে বলে শাসকদল তৃনমূলের বিরুদ্ধে নিজেদের ঘুঁটি সাজাচ্ছে গেরুয়া শিবির। তৃনমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই বঙ্গ বিজেপিকে ময়দানে নামারও নির্দেশ দিয়েছেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। শুধু তাই নয় – শাসকদলের ‘সন্ত্রাস’ নিয়ে এবার সরাসরি সুপ্রিম কোর্টে মামলা করার জন্যও নাকি নির্দেশ এসে পৌঁছে গেছে বঙ্গ-বিজেপি শিবিরের নেতাদের কাছে।

তবে শুধু রাজ্য নয়, গোটা দেশেই এই তৃনমূল বিরোধী আন্দোলন চালানোর পরিকল্পনা নিচ্ছে বিজেপি। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই রাজ্যে দলীয় কর্মীদের ওপর হামলার কারনে বঙ্গ বিজেপির পক্ষ থেকে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের কাছে তৃনমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগও জানানো হয়েছে। এমনকী দিল্লীর রাজঘাটে এনিয়ে ধর্নাও করেছে বিজেপি।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর লোকসভার আগে তৃনমূল বিরোধী আন্দোলনে বঙ্গে পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনে এই গন্ডগোল নতুন অস্ত্র তুলে দিল। জানা গেছে, রাজ্যে পঞ্চায়েতের এই বোর্ড গঠন সমাপ্ত হওয়ার পরই বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে যে ঝামেলার সৃষ্টি হয়েছিল সেই ইস্যুকে সামনে রেখে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ারও চিন্তাভাবনা করছে গেরুয়া শিবির। বিজেপির অভিযোগ, যেসব এলাকায় ‘স্বাভাবিক নিয়মে’ বিরোধীদের বোর্ড গড়ার কথা সেইসব জায়গাতে নিজেদের পেশিশক্তি দেখিয়ে ভীতিপ্রদর্শনে ব্যস্ত শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের ভারপ্রাপ্ত সহনেতা সূরেশ পূজারী বলেন, “একদিকে আমাদের দলের সর্বভারতীয় সভাপতিকে আইনি নোটিস পাঠাচ্ছে আর অন্যদিকে আমাদেরই নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। আমরা বোর্ড গঠনের জন্য অপেক্ষা করছি। তারপরেই তৃনমূলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক লড়াই শুরু হবে”।

রাজনৈতিক মহলের মতে, এবার বিজেপির পাখির চোখ এই বাংলা। তাই বোর্ড গঠনের অশান্তিকেই এবার বড় করে তুলে ধরে লোকসভার আগে তৃনমূলকে চাপে ফেলতে চায় তাঁরা। শুধু তাই নয় আগামী সপ্তাহে দিল্লিতে বিজেপির দুদিনের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠকও রয়েছে। সেখানেও এই বাংলার সংগঠনই মূল আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠতে পারে গেরুয়া শিবিরৈর কাছে।

Top
error: Content is protected !!