এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > ডেঙ্গু নিয়ে বীতশ্রদ্ধ বিজেপি, রাজ্য সরকারের ‘কাজ’ তুলে নিল নিজেদের ‘হাতে’

ডেঙ্গু নিয়ে বীতশ্রদ্ধ বিজেপি, রাজ্য সরকারের ‘কাজ’ তুলে নিল নিজেদের ‘হাতে’

ডেঙ্গু নিয়ে রাজ্য-রাজনীতি সরগরম। একদিকে যখন বিরোধীদের দাবী ডেঙ্গু নিয়ে রাজ্য সরকার ‘সত্যিটা’ চেপে যাচ্ছে, অন্যদিকে রাজ্য সরকারের দাবী ডেঙ্গু নিয়ে বিরোধীরা অযথা ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে প্রচার করছে। এমনকি, এই নিয়ে তরজা এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে নার্সিং হোমে ভর্তি হওয়ার সময় বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী সাংবাদিকদের সামনে ডেঙ্গুকে কটাক্ষ করে ‘পিসির দয়া’ বলে অভিহিত করেন। এহেন পরিস্থিতিতে বিজেপির দাবী উত্তর কলকাতা জুড়ে ডেঙ্গুর প্রকোপ ক্রমশ বাড়ছে এবং এখনো পর্যন্ত ডেঙ্গুতে অন্তত ৩ জন মারা গেছেন গত দু-সপ্তাহে।গোটা উত্তর কলকাতা জুড়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত অন্তত ২০০ জন। উত্তর কলকাতার এমন একটাও গলি নেই, যেখানে ডেঙ্গুর প্রকোপ নেই কিন্তু তা সত্ত্বেও শাসকদলের স্থানীয় কাউন্সিলর সহ রাজ্য সরকার সেইভাবে কিছুই করছেন না। বিজেপি এমনও দাবী করেছে, স্থানীয় কাউন্সিলর ডেঙ্গুর এমন ভয়াবহতাও মানতে নারাজ, তিনি দাবী করেছেন গত কয়েক বছরের মতোই এবছরেও মশা মারার ধোঁয়া রাস্তায় রাস্তায় স্প্রে করা হয়েছে। কিন্তু বিজেপির দাবী, এই অঞ্চলে যেহেতু অনেক বয়স্ক মানুষ থাকেন, তাই সঠিক সংখ্যা জানা না থাকলেও এই ধোঁয়ার ফলে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন এমনকি বেশ কিছু মানুষ সেই একই কারণে স্বাসকষ্টে মারা গেছেন।


তাই বিজেপির সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশীষ শীলের নেতৃত্ত্বে রাজ্য বিজেপি আজ উত্তর কলকাতায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে সমাজসেবামূলক কর্মসূচি গ্রহণ করে। দেবাশীষ বাবুর দাবী যেহেতু স্থানীয় কাউন্সিলর বা রাজ্য সরকার সেইভাবে ডেঙ্গু প্রতিরোধক কোনো কর্মসূচি নিচ্ছেন না বা যে মশা নিরোধক ধোঁয়া ছড়ানো হচ্ছে তাতে সাধারণ মানুষ অসুবিধায় পড়ছেন তাই মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে এবং তাঁদের সুবিধার্থে বিজেপির তরফ থেকে আজ ব্লিচিং পাউডার ছাড়ানো হয়। এছাড়া খুব শীঘ্রই, ওই একই এলাকায় মশা মারার তেলও ছড়ানো হবে। দেবাশীষবাবু আরো দাবী করেন যে ৩ জন মারা গেছেন ডেঙ্গুতে তাঁদের প্রত্যেকের ডেথ সার্টিফিকেটে ‘ডেঙ্গু’ শব্দটি লেখা আছে। এছাড়া মৃত ৩ ব্যক্তির মধ্যে অন্যতম সঞ্জয় সিংহের বাবা নারায়ন সিংহ, যিনি এলাকায় নেমুয়া নামেই বেশি পরিচিত একজন আদ্যপান্ত বাম সমর্থক ও কর্মী। কিন্তু আজকের বিজেপির অভিযানে তিনিই সর্বাগ্রে থেকে সবরকমের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। পুত্রশোকে নিথর হয়ে যাওয়া নেমুয়া বাবুর দাবী, এটা রাজনীতির সময় নয়, রাজনীতির চাপান-উতোরই হয়তো তাঁর পুত্রের প্রাণ কেড়েছে। আর তাই দলমত নির্বিশেষে এখন এগিয়ে এসে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে হবে। বিজেপির দেবাশীষবাবু জানান আজকের এই সামগ্রিক কর্মসূচিতে অভাবিত সাড়া পাওয়া গেছে স্থানীয় মানুষের এবং সরকারি উদাসীনতা নিয়ে তাঁদের ক্ষোভও যথেষ্ট করে পরিস্ফুটিত হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!