এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শিক্ষকদের বঞ্চনার কথা তুলে কাছে টেনে রাজ্য সরকারকে চাপে ফেলতে আসরে বিজেপি

শিক্ষকদের বঞ্চনার কথা তুলে কাছে টেনে রাজ্য সরকারকে চাপে ফেলতে আসরে বিজেপি

গতকাল পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচী অনুযায়ী বর্ধমান লায়ন্স ক্লাবের সভাঘরে বিজেপির টিচার্স সেলের বর্ধমান জেলার (বিজেপির সাংগঠনিক জেলা) আহ্বায়ক রাধাকান্ত রায়ের উদ্যোগে প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো। এই স্মমেলন উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের রাজ্য আহ্বায়ক দিপল বিশ্বাস, বিজেপির রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসু, নেতাজীর পৌত্র চন্দ্র কুমার বোস, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা তনভির নাসরিন, কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী শুভ্রদীপ রায় সহ বিধান গায়েন, অর্ধেন্দু বিশ্বাস প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তি সহ জেলার প্রায় ২০০ জন প্রতিনিধি।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

সম্মেলন সমাপ্তির পরে সংগঠনের জেলা আহ্বায়ক রাধাকান্ত রায় সংবাদমাধ্যমকে বলেন সম্মেলনে মূলত ১১ দফা দাবী নিয়ে আলোচনা হয়েছে । যার মধ্যে রয়েছে শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগ এবং সরকারী অর্থের অপচয় বন্ধ করা, শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতিমুক্ত ও স্বজনপোষণমুক্ত করা, সাম্প্রদায়িক তোষণ বন্ধ করা প্রভৃতি। এছাড়াও এদিন সম্মেলনে রাধাকান্ত বাবু বললেন, ভারতবর্ষের অন্যান্য রাজ্যে শিক্ষকদের জন্য সপ্তম বেতন কমিশন লাগু হয়ে গেছে। কিন্তু এখনও পশ্চিমবাংলায় পঞ্চম বেতন কমিশন চলছে। ষষ্ঠ বেতন কমিশন গঠন হলেও এখনও তার ফলাফল জানা যায়নি। এমতবস্থায় গোটা রাজ্য জুড়েই শিক্ষকরা বঞ্চনার শিকার। এমনকি বহু শিক্ষককে ১০০-২০০ কিমি পর্যন্ত দূরত্বে গিয়ে স্কুল করতে হচ্ছে। এব্যাপারে বারবার প্রশাসনের কাছে জানিয়েও ফল পাওয়া যাচ্ছে না। এমনিতেই বকেয়া ডিএ ও ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ প্রকাশিত না হওয়ায় ক্ষোভের চোরাস্রোত বইছে সরকারি কর্মচারী সহ সরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে। আর রাজ্যের বিরোধীদল বিজেপি ঠিক সেই দাবির জায়গাতেই পাশে দাঁড়ানোয় তা রাজ্যজুড়ে কোনো রাজনৈতিক সমীকরণ বদলায় কিনা সেদিকেই এখন তাকিয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!