এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নির্বাচনের থেকেও বিজেপি সরকারের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ দেশের নিরাপত্তা জানালেন অমিত শাহ

নির্বাচনের থেকেও বিজেপি সরকারের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ দেশের নিরাপত্তা জানালেন অমিত শাহ

গত 14 ই ফেব্রুয়ারি ভারতের জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে চালানো নৃশংস হামলার পরই সকলে মিলে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া জবাব দেওয়া উচিত বলে দাবি জানায় সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো। কিন্তু মুখে বললেও পরবর্তীতে গত 26 শে ফেব্রুয়ারি যখন ভারতীয় বায়ুসেনার পক্ষ থেকে পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া হল, ঠিক তখনই আদৌ পাকিস্তানে জঙ্গি ঘাঁটি ওড়ানো হয়েছে কি না সেই ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করতে দেখা যায় দেশের অনেক বিরোধী দলকেই।

যা নিয়ে শাসক দল বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয় যে, বিরোধীরা এই ব্যাপারে রাজনীতি শুরু করেছে। এমনকি বিজেপির সাথে সাথে দেশের রাজনৈতিক মহলও এই ব্যাপারে বিরোধীদের বিপক্ষেই সওয়াল করে। কিন্তু বিরোধীরা আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে ইস্যু করে এই ব্যাপারে যে মন্তব্যই করুক না কেন, তাদের কাছে নির্বাচন অপেক্ষা ভারতের জওয়ান ও দেশের নিরাপত্তাই যে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু তা ফের স্পষ্ট করে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

সূত্রের খবর, এদিন ভোপালের একটি জনসভায় উপস্থিত হয়ে অমিত শাহ বলেন, “আজ পাকিস্থানে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে একঘরে। কেউ তাকে সমর্থন করছে না। আর এই “ডিপ্লোমেটিক ভিকট্রি” একমাত্র নরেন্দ্র মোদির সরকারই এনে দিয়েছে। তবে আমাদের কাছে নির্বাচনের থেকেও এখন বেশি গুরুত্বপূর্ণ দেশের নিরাপত্তা।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, যখন দেশের বিভিন্ন বিরোধী দলের পক্ষ থেকে আদৌ পাকিস্তানের জঙ্গিঘাঁটি ওড়ানো হয়েছে কিনা সেই ব্যাপারে ভারত সরকার ও পাকিস্তানের বায়ুসেনার প্রতি সন্দেহ প্রকাশ করা হচ্ছে, ঠিক তখনই লোকসভা নির্বাচন অপেক্ষা ভারতের নিরাপত্তা এবং জওয়ানদের সুরক্ষাই যে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে প্রধান ইস্যু তা বলে আসলে সেই বিরোধীদেরকেই ঠেস দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

অন্যদিকে এদিন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীকে কিছুটা খোঁচা দিয়ে অমিত শাহ বলেন, “জঙ্গিদের জবাব দেওয়ার সাহস আছে রাহুলবাবার! যার পাকিস্তানকে জবাব দেওয়ার ক্ষমতা নেই, তিনি আবার অন্যের উপর প্রশ্ন তুলছেন।” সব মিলিয়ে এবার ভোপালের জনসভা থেকে লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজালেও তাদের কাছে দেশের নিরাপত্তাই প্রধান ইস্যু বলে প্রকৃত দেশপ্রেমিকের মতই বক্তব্য রাখলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

আপনার মতামত জানান -
Top