এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ২০১৪ এর থেকেও বেশি আসন পেতে ২০১৯-এ বিশেষ পরিকল্পনা গেরুয়া শিবিরের

২০১৪ এর থেকেও বেশি আসন পেতে ২০১৯-এ বিশেষ পরিকল্পনা গেরুয়া শিবিরের

গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে আসছে লোকসভা নির্বাচন। হাতে গোনা আর কয়েক মাস বাকি মাত্র, এমনকি নির্দিষ্ট সময়ের অনেক আগেই হয়ে যেতে পারে লোকসভা নির্বাচন বলে জল্পনা বাড়িয়েছেন স্বয়ং তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই ইতিমধ্যেই কোমর বেঁধে ভোট পূর্ববর্তী কর্মসূচি নিয়ে ময়দানে নেমে পড়েছে কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, চলতি মাসের ১০ তারিখ থেকেই ছত্তিশগড় সফর দিয়ে বিজেপি শিবিরের জন্য প্রচার শুরু করে দিয়েছেন সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। জুলাই মাসের মধ্যেই লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্রচারের রণকৌশল চূড়ান্ত করে নিতে চান তিনি। আর তারপরেই নিজস্ব পর্যবেক্ষণের উপর ভিত্তি করে দলের রণনীতি নিয়ে জরুরি সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। প্রসঙ্গত ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি শিবিরের কাছে অন্যতম সম্ভাবনাময় রাজ্য বাংলা, আর দুদিনের মধ্যেই সেখানে প্রচার কৌশল ও পরিকল্পনা চূড়ান্ত করতে বঙ্গ-সফরে আসছেন অমিত শাহ।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে ২০১৯-এর লোকসভার লড়াই বিজেপির কাছে অন্যতম কঠিন লড়াই হতে চলেছে। একদিকে মোদী-সরকারের উপর প্রত্যাশা মেটানো বা না মেটানোর উপর নির্ভর করে সাধারণ মানুষের ক্ষোভ বা ভালোবাসা উপচে পড়বে, অন্যদিকে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে বিজেপি বিরোধিতায় সব বিরোধী দলগুলি ক্রমশ একছাতার তলায় আসার প্রয়াস শুরু করে দিয়েছে। আর তাই সূত্রের খবর, এবারের লোকসভা ভোটে বিরোধীদের সঙ্গে লড়াই করতে মায়াবতীর বহুজন সমাজবাদী পার্টির ফর্মুলা অনুকরণ করতে চলেছে বিজেপি। কি সেই ফর্মুলা? দেশের ৫৪৩ টি লোকসভা কেন্দ্রের প্রতিটির দায়িত্ব দেওয়া হবে এক-একজন বিজেপি নেতার উপর। এছাড়া ১১ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটিও তৈরি করা হবে রাজ্যগুলিতে। প্রসঙ্গত, বেশ কয়েক বছর ধরেই এক একটি লোকসভা কেন্দ্র পিছু একজন করে নেতা নিযুক্ত করার রীতি চলে আসছে মায়াবতীর বিএসপিতে। সেই কৌশলই রপ্ত করে লোকসভা ভোটে জয়ের মুকুট ছিনিয়ে নিতে চাইছে পদ্ম শিবিরের নেতারা। এই প্রসঙ্গে বিজেপির এক সর্বভারতীয় নেতার মন্তব্য, লোকসভা ভোটের জন্য তাঁরা তৈরি হচ্ছেন। জলদি প্রস্তুতি শুরু করার সুফলও পাবার আশায় আছেন তাঁরা। কেননা আগে প্রস্তুতি শুরু করায় দলের অন্দরের খুঁতগুলো নিয়ে আগের থেকেই ব্যবস্থা নেওয়া যাবে। আর সেই অনুযায়ী দলীয় নেতাদের মধ্যেও সমঝোতায় বসা যাবে। ফলে গতবারের লোকসভা ভোটের (২০১৪) থেকেও বেশি আসন পেয়ে ক্ষমতায় ফিরছে বিজেপিই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!