এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এবার বিজেপির সঙ্গে জোট নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল বামফ্রন্ট

এবার বিজেপির সঙ্গে জোট নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল বামফ্রন্ট

উত্তর পূর্ব ভারতের তিনটি রাজ্যে জয়ের পরেও দেশ জুড়ে আঞ্চলিক দলগুলির বিজেপি বিরোধীতায় জোটবদ্ধতার ঘটনায় স্বভাবতই অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। রাজ্যের আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে আঞ্চলিক দল গুলির অপ্রত্যাশিত রদ বদলে একরকম সঙ্কটের মুখে কেন্দ্রীয় বিজেপি । মাত্র কদিন আগেই অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সিপিএমের ২৫তম রাজ্য সম্মেলন। আর সেখানেই আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন বিষয়ে আলোচনার সময়ে কিছু কিছু প্রতিনিধি জানিয়েছেন, তাঁদের অজান্তেই তলায় তলায় জোট হয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি চলছে এইসময়। এই ইঙ্গিত পাওয়ার পরই রাজ্য সম্মেলনে সিপিএম নেতৃত্ব জানিয়েছেন এই রাজ্যে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস দুই দলের সাথেই একই রকম বিরোধীতায় লড়াই হবে।

আরো নতুন খবর পেতে চোখ রাখুন –প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

একইসাথে বামফ্রন্ট নির্দেশিকা জারি করে বিজেপি সম্পর্কে সতর্ক-বার্তা জারি করেছে। উল্লেখ্য জেলায় জেলায় সূর্যকান্ত মিশ্র, গৌতম দেব, সুজন চক্রবর্তী প্রমুখ নেতা দলীয় কর্মীসভা আয়োজন করে সেখানে দলীয় কর্মীদের আসন্ন নির্বাচনের জন্যে দলীয় কাজকর্মে সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করতে আহ্বাণ করছেন। বাম নির্দেশিকাতে স্পষ্টতই বলা হয়েছে, ”ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টি ও আরও নানা ভাবে বিজেপি শক্তি বৃদ্ধির চেষ্টা করছে। বিষয়টি খুবই সতর্কতার দাবি রাখে। কোনও ক্রমেই তৃণমূলকে পরাজিত করার জন্য বিজেপির সঙ্গে বোঝাপড়া করা যাবে না।” রবিবার নদীয়া জেলার সাধারণ সভার পরে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যবাবুর ব্যাখ্যা, ”আমরা বারবার বলছি, তৃণমূলকে দিয়ে বিজেপি-কে বা বিজেপি-কে দিয়ে তৃণমূলকে হারানোর ভাবনা আত্মঘাতী! কোনও প্রলোভনেই বিজেপির দিকে যাওয়া যাবে না। বাংলায় পঞ্চায়েতের জন্য বামফ্রন্ট যে কাজ করেছিল, তা মাথায় রেখে নির্বাচনে নিজেদের লড়াই লড়তে হবে।” এত কিছুর পরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য বললেন, ”আমরা কারও সঙ্গে জোট করব না। পঞ্চায়েতে একা লড়ব, আমাদের ভোটও বাড়বে।” পঞ্চায়েত নির্বাচন কে ঘিরে তৈরী হওয়া নানা রাজনৈতিক চাপান উতোর , নির্বাচন সম্পন্ন না হওয়া অবধি রাজ্যে চলবে বলেই অনুমান করা যায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!