এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করছি বাংলা থেকে দুটো আসন পেয়ে দেখাক: অভিষেক ব্যানার্জি

বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করছি বাংলা থেকে দুটো আসন পেয়ে দেখাক: অভিষেক ব্যানার্জি

ফের বিজেপি বিরোধীতায় সরব রাজ্যের শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস। গতকাল বিজেপি বিরোধী দলগুলোর ডাকে বনধ হলেও সেই বনধে সামিল হবে না বলে আগেই নিজেদের বক্তব্য জানিয়ে দিয়েছিল তৃনমূল কংগ্রেস। কিন্তু বনধকে সমর্থন না করলেও বনধের ইস্যুকে সমর্থন করে এদিন রাস্তায় নেমেছিলেন শাসকদলের শীর্ষনেতৃত্বরা।

সূত্রের খবর, পেট্রোপন্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এদিন মৌলালি থেকে ডোরিনা ক্রসিং পর্যন্ত একটি মিছিল করে তৃনমূল। আর এরপরই ধর্মতলায় আয়োজিত একটি প্রতিবাদ সভায় বিজেপির বিরুদ্ধে হুঙ্কার ছাড়েন যুব তৃনমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এদিনের এই সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তৃনমূলের সর্বভারতীয় সাধারন সম্পাদক সুব্রত বক্সী, তৃনমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, শশী পাঁজা, বিধায়ক সুজিত বসু; রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা।

এদিনের সভায় বক্তব্য রাখতে উঠে বিজেপির ভেদাভেদের রাজনীতিকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করেন তৃনমূলের নেতারা। এদিনের কর্মনাশা বনধ ব্যার্থ করবার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি সভায় উপস্থিত ছাত্র যুবদের এখন থেকেই 2019 এ কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে সরানোর রাজনৈতিক অস্ত্রে শান দিতে বলেন তৃনমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এরপরেই বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের এই বাংলা থেকে 22 টি আসনের টার্গেটের স্বপ্নে জল ঢেলে দিয়ে তৃনমূলের যুবরাজ বলেন, “অমিত শাহ বলেছেন এই রাজ্য থেকে লোকসভায় নাকি 22 টি আসন পাবে। আমি সেই 22 টা থেকে একটা 2 বাদ দিয়ে দিলাম। বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করছি এই বাংলা থেকে দুটো আসন পেয়ে দেখাক।”

শুধু তাই নয় এদিনের সভা থেকে বিজেপিকে জোকার পার্টি হিসাবেও অভিহিত করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে অভিষেকের সুরেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে এদিন তৃনমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “24 ঘন্টার বনধ করতে সিপিএম পুরোপুরি ব্যার্থ। 34 বছরে বামেরা যে অন্যায় করেছে বিজেপি ঠিক একই কায়দায় সেই অন্যায়ই করছে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে শাসকদলের নেতারা এই বনধকে সমর্থন না করলেও পর্দার আড়ালে বনধের সমর্থকরা সব জায়গায় বনধ সফল করার চেষ্টা করলেও পুলিশ কোনোও পদক্ষেপ নেয়নি বলে এদিন তৃনমূল-বাম এবং কংগ্রেসকে একযোগে আক্রমন করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রাজনৈতিক মহলের মতে, বাংলায় লোকসভা ভোটের দামামা বেজে গেল। এখন রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের ঝুলি থেকে কোন বেড়াল বের করে সেদিকেই নজর সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!