এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দার্জিলিং আসন নিজেদের দখলে রাখতে বিজেপি প্রার্থীর প্রচারেও ভরসা বিমল গুরুংয়ের “বন্ধুত্ব”

দার্জিলিং আসন নিজেদের দখলে রাখতে বিজেপি প্রার্থীর প্রচারেও ভরসা বিমল গুরুংয়ের “বন্ধুত্ব”

বিগত 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং আসনটি নিজেদের দখলে রাখলেও সম্ভাবনাময় আসন বলে পরিচিত আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রটিতে হেরে গিয়েছিল তারা। কিন্তু এবারে সেই আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রকে পাখির চোখ করেছে গেরুয়া শিবির।

এমনকি ভোট প্রচারে আশ্চর্যজনকভাবে গোর্খাবাসী ভোটারদের সামনে নিজেকে বিমল গুরুংয়ের বন্ধু বলে পরিচয় দিতে শুরু করেছেন আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী জন বারলা। কিন্তু যেখানে বিমল গুরুংকে ফেরার বলে জোর প্রচার চালাচ্ছে শাসক দল, সেখানে সেই বিমল গুরুংকে বন্ধু বলে কেন অভিহিত করছেণ আলিপুরদুয়ারের বিজেপি প্রার্থী!

সূত্রের খবর, শনিবার আলিপুরদুয়ারের বিজেপি প্রার্থী জন বারলা বলেন, “আমি বিমলের বন্ধু। আমরা তো একসঙ্গে গোর্খাদের জন্য আন্দোলন করেছি। ডুয়ার্সে আদিবাসীদের মত গোর্খারাও বঞ্চিত। আমরা একসাথে মিলে এখানে লড়াই করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে জয় আনব।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিন্তু যেখানে বিমল গুরুং দোষী হিসেবে পরিচিত, সেখানে কেন তাকে বন্ধু হিসেবে অভিহিত করলেন আলিপুরদুয়ারের বিজেপি প্রার্থী! তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তুলে দিয়েছে তৃণমূল। এদিন এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা তৃনমূলের সভাপতি মোহন শর্মা বলেন, “ডুয়ার্সে বর্তমানে মোর্চার কোনো প্রভাব নেই। তাই বিজেপি প্রার্থীকে মরিয়া হয়ে বিমলের বন্ধু বলে পরিচয় দিয়ে ভোট ভিক্ষা করতে হচ্ছে। এতে ওরা কোনো লাভ করতে পারবে না।”

অন্যদিকে তৃণমূলের এখহেন দাবির মুখে পড়ে পাল্টা সরব হয়েছে বিজেপি। এদিন এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, “অমিত শাহ বলে দিয়েছেন যে বাংলার সরকার গোর্খাদের উপর অত্যাচার করছে। একসময় তো বিমল গুরুং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মা বলে অভিহিত করতেন। তাহলে আমাদের প্রার্থী বিমল গুরুংকে বন্ধু পরিচয় বলে দিলে আপত্তি কোথায়!”

সব মিলিয়ে আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রে প্রচারে বিমল গুরুংকে নিজেদের বন্ধু বলে পরিচয় দিয়ে সোরগোল তুলে দিলেন বিজেপি প্রার্থী জন বারলা।

আপনার মতামত জানান -
Top