এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ঘর ওয়াপসিতে ভর করে বিজেপিকে বড় ধাক্কা! আরও একটি পঞ্চায়েতের দখল নিল তৃণমূল!

ঘর ওয়াপসিতে ভর করে বিজেপিকে বড় ধাক্কা! আরও একটি পঞ্চায়েতের দখল নিল তৃণমূল!

 

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়কালে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিজেপির উত্থান ঘটতে শুরু করে। তৃণমূলের অনেক দাপুটে নেতা কর্মী যোগ দেন গেরুয়া শিবিরে। তবে কিছুদিনের মধ্যেই অবশ্য অবস্থা পরিবর্তন ঘটে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া ব্যক্তিরা ফের তৃণমূলে ফিরে আসতে শুরু করেছেন।

এবার ওন্দার রতনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সমীর মন্ডল সহ 9 গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য বিজেপি ছেড়ে ফিরে এলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। সূত্রের খবর, রবিবার রতনপুর বাজারে এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক অরুপ খার হাত ধরে এই নয় পঞ্চায়েত সদস্য তৃণমূলে যোগদান করেন। যার ফলে এই পঞ্চায়েতের ক্ষমতা এবার তৃণমূলের দখলে চলে এল বলে দাবি রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

এদিন এই প্রসঙ্গে এই রতনপুর পঞ্চায়েতের দখল নেওয়ার পর তৃণমূল বিধায়ক অরূপ খাঁ বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের পর বিজেপি ভয় দেখিয়ে আমাদের একাধিক পঞ্চায়েত প্রধান এবং সদস্যকে তাদের সঙ্গে যোগ দিতে বাধ্য করেছে। কিন্তু কিছুটা সময় যাওয়ার পরে এই সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানরা তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে এসেছেন।

এদিন রতনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরাও দলে ফিরে এলেন। আমাদের সরকার কোনো অবস্থাতেই এনআরসি বা সিএএ কার্যকর করতে দেবে না বলে ঘোষণা করেছে। কিন্তু তারপরেও কিছু মানুষ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিজেপির উস্কানিতে গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা করছে। এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখবার জন্য আবেদন জানানো হয়েছে।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে তৃণমূলের অভিযোগ অবশ্য অস্বীকার করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অমর শাখা বলেন, “শাসকদলের পঞ্চায়েত সদস্যদের পুলিশ দিয়ে তুলে নিয়ে যোগ দিতে বাধ্য করেছে। ভয় দেখিয়ে ক্ষমতা পরিবর্তন করলেও রতনপুর এলাকার মানুষ মনেপ্রাণে যে বিজেপির সঙ্গে রয়েছে, তা আগামী নির্বাচনেই বোঝা যাবে।”

কিন্তু কেন তারা হঠাৎ বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন! এদিন এই প্রসঙ্গে রতনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সমীর মন্ডল বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর পারিপার্শ্বিক চাপে পড়ে মানুষের কাজ করার জন্য বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলাম। এখন পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে। বিরোধী দলে থেকে মানুষের জন্য কাজ করা যায় না। তাই ফের তৃণমূলে ফিরে এসেছি।”

বিশ্লেষকরা বলছেন, যেভাবে লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর এবং বাঁকুড়ায় বিজেপির উত্থান ঘটেছিল, তাতে যত দিন যাচ্ছে, সেই উত্থানে ভাটা পড়তে শুরু করেছে। এবার রতনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপিতে চলে যাওয়া প্রধান সহ 9 সদস্যের তৃণমূলে ফিরে আসা এবং বিজেপির এই পঞ্চায়েত হাতছাড়া হওয়ায় তৃণমূল অনেকটাই অক্সিজেন পেল বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

আপনার মতামত জানান -
Top