এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নিজেদের প্রার্থীর সঙ্গে শাসকদলের বিক্ষুব্ধদের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করছে বিজেপি

নিজেদের প্রার্থীর সঙ্গে শাসকদলের বিক্ষুব্ধদের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করছে বিজেপি

কোচবিহার-২ ব্লকের বিজেপি দলীয় কর্মী ও সমর্থকেরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’র স্লোগান ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’  ঈশ্বেরর মুখ নিঃসৃত বাণীর মতোই অনুসরন করছে। কোনো উন্নয়নের মাধ্যমেই নয় বরং সেই সব গৃহহীন , সন্ত্রাস কবলিত মানুষজনকে আশ্রয় দিয়ে যাঁরা পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজ্যের অশান্ত পরিবেশে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের আক্রমনে দুর্ভাগ্য পীড়িত বলে অভিযোগ। প্রসঙ্গত কোচবিহার-২ ব্লকের  মধুপুর গ্রামপঞ্চায়েতের কালপানি এলাকায় বেশ কিছু বিক্ষুব্ধ তৃণমূল কর্মী নির্দলের হয়ে পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে বলে জানা গেছে। এদিন রাতে সেইসব বিক্ষুদ্ধ নির্দল প্রার্থীর বাড়িতে দুষ্কৃতিরা আক্রমন চালায়। ঘর বাড়ি ভাঙচুর সহ অগ্নি সংযোগের ঘটনার কথা জানতে পারা যায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এই ঘটনার অভিযোগের তীর স্বাভাবিকভাবেই তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে। এদিনের ঘটনার পরে নির্দল প্রার্থী মিনতি বিশ্বাস ও তাঁর অনুগামীরা এলাকা ছাড়েন বলে জানা গিয়েছে। এদিনের ঘটনায় আক্রান্তদের পাশে থেকে তাঁদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে গেরুয়া শিবির।এ প্রসঙ্গে কোচবিহার বিজেপি জেলা সভাপতি সুকুমার রায় বললেন, “বিজেপি চায় সবকা সাথ, সবকা বিকাশ। কালপানির ওই এলাকায় আমাদেরও প্রার্থী রয়েছে। বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীরা যেহেতু সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছে তাই আমরাও তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছি।”   অবশ্য অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস দলের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ সর্বাঙ্গীনভাবেই অস্বীকার করা হয়েছে। দলের কোচবিহার-২ ব্লক সভাপতি পরিমল বর্মন নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বললেন, “এখানে কোনও গোষ্ঠীকোন্দল নেই। পারিবারিক বিবাদকে রাজনৈতিক রং দেওয়া হচ্ছে।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!