এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > বিজেপির ঝুলিতে যুক্ত হতে চলেছে কি এই পৌরসভাও! জোর জল্পনা

বিজেপির ঝুলিতে যুক্ত হতে চলেছে কি এই পৌরসভাও! জোর জল্পনা


লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির ভালো ফলাফলের পরই শাসক দল তৃণমূলের অন্দরে ভাঙ্গন দেখা দিতে শুরু করে। বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়ের হাত ধরে শাসক দলের দখলে থাকা একাধিক পৌরসভার কাউন্সিলররা পদ্ম শিবিরে নাম লেখান। যা নিয়ে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি।

আর এমত একটা পরিস্থিতিতে মালদা জেলার অন্তর্গত পুরাতন মালদা পৌরসভার শাসকদলের কাউন্সিলররা শিবির বদল করতে পারেন বলে নানা মহলে জল্পনা শুরু হয়। তবে সমস্ত কাউন্সিলররা তৃনমূলেই রয়েছে এবং তৃণমূলেই থাকবে বলে জানিয়ে দেয় জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

কিন্তু এবার সম্প্রতি কলকাতার নজরুল মঞ্চে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সমস্ত কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক ডাকলেও সেখানে পুরাতন মালদা পৌরসভার উপপুরপ্রধান চন্দনা হালদার এবং বেশ কয়েকজন তৃণমূল কাউন্সিলরের অনুপস্থিতি তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি করেছে। তাহলে কি এবার এই পুরাতন মালদা পৌরসভার রংও বদল হতে চলেছে!

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে এই পৌরসভার পৌর প্রধান কাত্তিক ঘোষ বলেন, “কিছু কাউন্সিলর বৈঠকে যেতে পারেনি ঠিকই, তবে সকলেই আমার সঙ্গে রয়েছেন।” কিন্তু খোদ উপ পুরপ্রধান হয়েও তিনি কেন দলনেত্রীর ডাকা বৈঠকে উপস্থিত হলেন না!

এদিন এই প্রসঙ্গে এই পৌরসভার উপ পৌরপ্রধান চন্দনা হালদার বলেন, “ব্যক্তিগত কারণে কলকাতায় যাওয়া হয়নি। তবে বৈঠকে না যাওয়া মানেই যে আমরা দলবদল করছি এটা ভাবাটা ভুল।” এদিকে এই ব্যাপারে ময়দানে নেমে পড়েছে গেরুয়া শিবিরও। এদিকে এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা চন্দন দে বলেন, “পুরাতন মালদা পৌরসভার অনেক তৃণমূল কাউন্সিলর বিজেপির দিকে পা বাড়িয়েছেন‌। এই পুরবোর্ড ভাঙা এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, পুরাতন মালদা পুরসভার অনেক কাউন্সিলার বিজেপির দিকে যেতে পারেন বলে মাঝে জল্পনা তৈরি হলে জেলা তৃণমূল সভাপতি তাদের নিয়ে বৈঠক করে সেই দল বদলের জল্পনায় জল ঢেলে দিয়েছিলেন। কিন্তু স্বয়ং দলনেত্রীর ডাকা বৈঠকেও যেভাবে মালদা জেলার এই পৌরসভার উপ পৌরপ্রধান এবং অনেক কাউন্সিলররা অনুপস্থিত থাকলে তাতে তাদের শিবির বদলানোর প্রসঙ্গ যে আরও বেশি করে উঠবে, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত প্রায় প্রত্যেকেই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!