এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জনগণেই ভরসা রেখে জোড়া চাপে বঙ্গ-বিজেপি আজ অনুব্রত-গড়ে সফল সভা করতে মরিয়া

জনগণেই ভরসা রেখে জোড়া চাপে বঙ্গ-বিজেপি আজ অনুব্রত-গড়ে সফল সভা করতে মরিয়া

রাজ্যে তৃণমূলের অন্যতম শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত বীরভূমে থাবা বসানোর স্বপ্ন অনেক দিন ধরেই রয়েছে রাজ্য বিজেপির। আর তাইতো এই বীরভূমের রামপুরহাটে সভা করার জন্য অনেক দিন ধরেই নাছোড়বান্দা ছিল বিজেপি। কিন্তু বারে বারে সেই সভার দিনক্ষণ পিছিয়ে যাওয়ায় তীব্র হতাশা তৈরি হয়েছিল গেরুয়া শিবিরের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে।

আর এবার আজ সেই সভার দিনক্ষণ ঠিক হলেও শেষ পর্যন্ত তা কতটা সফল হয় তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বরা। কেননা প্রথমে এই সভায় দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর উপস্থিতির ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেলেও এখনও পর্যন্ত তিনি সেখানে আসছেন না বলেই খবর পাওয়া গেছে। যা নিয়ে ফের তৈরি হয়েছে প্রবল হতাশা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, 5 ডিসেম্বর থেকে এই বীরভূমে অমিত শাহর সভা নিয়ে তীব্র তৎপরতা শুরু হয়েছিল বিজেপির অন্দরে। প্রথমে তারাপীঠ থেকে বিজেপির রথযাত্রা শুরু করে রামপুরহাটে সভা করার কথা ছিল দলের সর্বভারতীয় সভাপতির। কিন্তু অন্য রাজ্যের নির্বাচনে থাকার কারণে তিনি সেখানে আসতে পারেননি।

পরবর্তীতে 14 ই ডিসেম্বর তারাপীঠে রথযাত্রা সূচনার দিন ঠিক করা হলেও আদালতের রায়ে তা সফল হয়নি। এদিকে এইভাবে লাগাতার দলের সর্বোচ্চ সেনাপতির সভার দিনক্ষণ পিছিয়ে যাওয়ায় নেতাকর্মীদের মনে যাতে হতাশা তৈরি না হয় সেজন্য কিছুদিন আগে ফের রামপুরহাটে অমিত শাহ সভা করতে আসবেন এরকম প্রচার করা হলে শেষ পর্যন্ত সেখানে সভা করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আর এরপরই ঠিক করা হয় যে 21 শে জানুয়ারি বীরভূমের সিউড়িতে সভা করবেন অমিত শাহ। কিন্তু পরবর্তীতে সেই তারিখে পিছিয়ে 23 জানুয়ারি করা হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আজ সেই সভায় সেই অমিত শাহর অনুপস্থিতির সম্ভাবনা জোরালো হয়ে উঠেছে। আর যাকে ঘিরে হতাশ জেলার বিজেপি কর্মীরা। তবে অমিত শাহ না এলেও এই সভায় আসার কথা রয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি ওই সভায় উপস্থিত থাকবেন কি না তা নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা। এছাড়াও সিউড়ির এই সভায় রেকর্ড সংখ্যক লোক ভরানোর জন্য ঝাড়খন্ড থেকে বাস ভাড়ার পরিকল্পনা নিলেও সভার 24 ঘন্টা আগে সেখান থেকেও কোনোরূপ সদুত্তর না পাওয়ায় শেষ পর্যন্ত এই সভা কতটা সফল হবে তা নিয়ে দোটানায় রয়েছে জেলা বিজেপির নেতারাও। একাংশের ধারণা, রাজ্যের পক্ষ থেকে বাস পাওয়া যাবে না এই কথা ধরে নিয়েই ঝাড়খণ্ডের দিকে তাকিয়ে ছিল সকলে।

কিন্তু সেখান থেকেও কোনো সদুত্তর না পাওয়ায় আশা ভঙ্গ হতে শুরু করেছে বিজেপির। অন্য দিকে অমিত শাহর পর স্মৃতি ইরানিও যদি এই সভায় উপস্থিত হন তাহলে রাজ্য নেতৃত্বকে দিয়েই যে শেষ মুহূর্তে মুখ রক্ষা করতে হবে তাও ভাবনা চিন্তার মধ্যে রেখেছেন বীরভূম জেলা বিজেপির নেতারা। কিন্তু ঝাড়খণ্ডের দিকে তাকিয়ে থাকলেও তাঁদের ডাকে সেখান থেকে কোনো সাড়া পাওয়া গেল না?

এদিন এই প্রসঙ্গে বীরভূম জেলা বিজেপির সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, “ঝাড়খন্ড থেকে এখনও কোনো উত্তর পাইনি। তাই সেখান থেকে বাস পাওয়ার আশা কম। আমরা নিজেদের শক্তি দিয়েই মাঠ ভরাবো। তৃণমূলের মত টাকা বা ভালো গাড়ি দিয়ে সভায় আমাদের যে কর্মী আনতে হয় না এটা আমরা দেখিয়ে দেব।” সব মিলিয়ে এবার বিজেপির আজকের বীরভূমের সভা ঠিক কতটা সফলতার মুখ দেখতে পারে এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!