এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দলবদলে গেরুয়া শিবির থেকে তৃণমূলে যেতেই মিলছে গুরুত্বপূর্ণ পদ, লোকসভার আগে চাপে বিজেপি?

দলবদলে গেরুয়া শিবির থেকে তৃণমূলে যেতেই মিলছে গুরুত্বপূর্ণ পদ, লোকসভার আগে চাপে বিজেপি?

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে মুকুল রায় যোগদান করে কোন পদ না পেলেও তৃণমূলে যোগ না দিয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আসায় সরকারের একটি পদে বসানো হয়েছিল একদা বাম নেতা তথা সাংসদ ঋতব্রত ভট্টাচার্যকে।

রাজনৈতিক মহলের তখন ধারণা ছিল যে, তাহলে কি এই ঋতব্রত ভট্টাচার্য কে পথ দিয়ে আদতে মুকুল রায়কেই বার্তা দিতে চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? তারপর গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে। এখন দরজায় কড়া নাড়ছে লোকসভা ভোট। আর এবার লোকসভা ভোটের আগে সেই বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া ব্যক্তিদেরই একের পর এক গুরুত্বপূর্ণ পদ দিচ্ছে শাসকদল।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই পুরুলিয়ায় বজরং দল ছেড়ে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসে নাম লিখিয়েছেন সুরজ শর্মা এবং গৌরব সিং। এবার লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই তাদেরই জেলাস্তরে বড়সড় পদে বসালো তৃণমূল কংগ্রেস।

দলীয় সূত্রের খবর, সুরজ শর্মাকে পুরুলিয়া জেলার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক এবং গৌরব সিংকে পুরুলিয়া শহর যুব তৃনমূলের সভাপতি পদে নিয়োগ করা হয়েছে। তবে শুধু সুরজ বা গৌরবই নয়, কিছুদিন আগে পুরুলিয়া জেলার যুব কংগ্রেসের জেলা সভাপতি ফৈজল কালাম আসরফ ওরফে সৈয়দ শাহী তৃণমূলে যোগ দিলেও কোন পদ পাননি। এদিন তাকেও দলের যুব সংগঠনের জেলা সহ সভাপতির পদে বসানো তৃনমূল কংগ্রেস।

পাশাপাশি যুব তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক পদে বসানো হল পাড়া ব্লকের রিয়াজ আহমেদকেও। হঠাৎ এই রদবদল কেন? এদিন এ প্রসঙ্গে পুরুলিয়া জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সুশান্ত মাহাত বলেন, “অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশানুযায়ী সুরজ এবং গৌরবকে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হয়েছে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে আসন্ন কালীপুজোর পরই জেলা যুব তৃনমূলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলেও এদিন জানান তিনি। রাজনৈতিক মহলের মতে এই রদবদলে এর পেছনে দুটি কারণ রয়েছে, এক, দলবদল করা বিজেপি কর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ পদে বসিয়ে গেরুয়া শিবিরকে যেমন চাপে রাখতে চাইল তৃণমূল কংগ্রেস, ঠিক তেমনি এই পুরুলিয়া জেলায় বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে নিজেদের ধসে যাওয়া ভোটব্যাঙ্ককেও আগামী লোকসভা নির্বাচনে শক্ত করার দিকে নজর দিতে চাইছে শাসকদল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!