এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > জেলা নেতৃত্ব কি কর্মসূচি নিয়ে দিশেহারা? ক্ষোভে ফুটছেন উত্তরবঙ্গের বিজেপি কর্মী

জেলা নেতৃত্ব কি কর্মসূচি নিয়ে দিশেহারা? ক্ষোভে ফুটছেন উত্তরবঙ্গের বিজেপি কর্মী

বারবার জেলাশাসকের দপ্তর অভিযান কর্মসূচির পরিকল্পনা করেও শেষমুহূর্তে উলটপুরাণ সিদ্ধান্ত উওরবঙ্গের বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের। ইতিমধ্যেই দুবার কর্মসূচির দিন পাল্টানো হয়ে গেছে। এর ভীষণ নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে নীচুতলার কর্মীদের উপর। ক্ষোভের পারা তাঁদের চড়ছে ক্রমশ। এই ইস্যু নিয়ে স্যোশাল মিডিয়া তোলপাড়ও করেছেন তাঁরা। প্রশ্ন তুলেছেন জেলা নেতৃত্বদের ভূমিকা নিয়ে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে, তৃণমূলের অবাধ সন্ত্রাসের রাজনীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতেই উওরবঙ্গের বিজেপি নেতৃত্ব ২২ জুন জেলাশাসকের দপ্তরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো। ওইদিন মুকুল রায় সহ বিজেপির তাবড় তাবড় ব্যক্তিত্বের উপস্থিত থাকার কথা ছিল। সেই কর্মসূচি বাতিল করতে হবে শাসকদলের কর্মসূচির কারণে। ওই একইদিনই তৃণমূল জেলা নেতৃত্বরা পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি প্রতিবাদ কর্মসূচি করার দিনক্ষণ স্থির করেছিল। ফলে বিজেপি ওদিন কর্মসূচি পালনের অনুমতিই পেল না। এদিকে,কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ ছিল, ১৮ জুন-২৪ জুনের মধ্যেই যে কোনো দিনে রাজ্য জুড়ে সন্ত্রাসের প্রতিবাদ করতে হবে। সেইজন্য মুকুল রায়,লকেট চট্টোপাধ্যায় ও রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো বিজেপির দাপুটে নেতারা হাজির থাকার কথা ছিল। ফ্লেক্সের আয়োজনও করা হয়েছিলো কর্মসূচি পালনের জন্যে। কর্মীদের আসার জন্য বাস,গাড়ীর ব্যবস্থা, রাজ্য নেতৃত্বদের জন্য হোটেল বুকিং ব্যবস্থাও করা হয়েছিলো। কিন্তু শেষবেলায় কর্মসূচি বাতিল হওয়ায় সব আয়োজন পন্ড হল। এর জেরে জেলা নেতৃত্বদেরও তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল। এরপরও কর্মসূচির তারিখ নিয়ে বেশ জেলানেতৃত্বদের মধ্যে নানান টালবাহানা চলছিল। শেষে জুলাই এর প্রথম সপ্তাহে বলে ১০ জুলাই কর্মসূচির দিন ধার্য করা হয়েছিলো। সেটা নিয়ে তড়িঘড়ি করে কর্মীরা প্রস্তুতি পর্ব শুরু করলেও অন্তিম লগ্নে বাতিল করতে হয়। এরপর আর ধৈর্য ধরে রাখতে পারেননি কর্মীরা। তীব্র ক্ষোভে ফোটে পড়েন তাঁরা।

কর্মসূচির বাতিলের কারণ জানা গেল বিজেপির জেলা সভাপতি নিখিলরঞ্জন দে-র সূত্র থেকে। তিনি জানান,নানা সমস্যার কারণে জেলাশাসক দপ্তর ঘেরাও কর্মসূচি বারবার বাতিল করতে হয়েছে। এ নিয়ে কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ থাকাটা স্বাভাবিক। ১০ জুলাই কর্মসূচি পালনের দিন চূড়ান্ত হলেও মুখ্যমন্ত্রীর কোচবিহার সফরের জন্যেই এই দিনটিও বাতিল করতে হল। তবে অজুহাত মানতে নারাজ নীচুতলার বিজেপি কর্মীরা। তাঁরা কিন্তু জেলা নেতৃত্বদের বিরুদ্ধেই অভিযোগের আঙুল তুলছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় জেলা নেতৃত্বের ভূমিকার উপর প্রশ্ন তুলে ঝড় তুলে দিচ্ছেন। এর জেরে কার্যত অস্বস্তিতে পড়েছে উওরবঙ্গের পদ্মনেতৃত্বরা। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আপাতত ১৩ জুলাই দিনটিকে কর্মসূচি পালনের জন্য স্থির করা হয়েছে। তবে সেটা আদেও হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় তুঙ্গে রয়েছে উওরবঙ্গের বিজেপি কর্মীদের মধ্যে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!