এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বিজেপি কার্যকর্তাদের জন্য সুখবর! আজ ঘোষণা হতে পারে মন্ডলস্তরের বিভিন্ন পদাধিকারীর নাম

বিজেপি কার্যকর্তাদের জন্য সুখবর! আজ ঘোষণা হতে পারে মন্ডলস্তরের বিভিন্ন পদাধিকারীর নাম

 

বিগত বাম সরকারের যখন বিদায় নেওয়ার সময় হয়েছিল, ঠিক তখনই সেই বামেদের অনেক নেতাকর্মীরা তৃণমূলের দিকে ঝুঁকতে শুরু করেছিলেন। কারণ তারা বুঝে গিয়েছিলেন যে, এবার রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার গঠিত হবে। পরবর্তীতে 2011 সালের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার গঠন হলে তৃণমূলে বিরোধী রাজনৈতিক দল থেকে প্রচুর নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়তে শুরু করে। যার ফলে তৃণমূলে পদ পাওয়ার জন্য নব্য বনাম আদি তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে শুরু হয় গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।

আর এবার লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি কিছুটা ভালো ফলাফল করায় সেই বিজেপি ক্ষমতার কাছাকাছি চলে গেছে অনুধাবন করে অনেক দল থেকেই অনেক নেতাকর্মী যোগ দিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টিতে। আর অন্য দল থেকে আসা নেতাকর্মীরা বিজেপিতে প্রবেশ করেই কি পদ পাবেন, তার দিকে তাকিয়ে রয়েছেন।

বর্তমানে বিজেপির সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী চলছে মন্ডল গঠনের কাজ। আর এক একটি মন্ডল থেকে একাধিক নাম পাঠানো হয়েছে বলে খবর। যা নিয়ে কিছুটা হলেও চাপে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু এহেন একটা পরিস্থিতিতে মন্ডল সভাপতিদের নাম ঘোষণা নিয়ে আর বিন্দুমাত্র সময় নষ্ট করতে চাইছে না গেরুয়া শিবির।

আর তাইতো মঙ্গলবারই কোচবিহার জেলা জুড়ে নতুন মন্ডল কমিটি গঠনের জন্য নতুন সভাপতির নাম ঘোষণা করে দিতে পারে তারা। আর নতুন মন্ডল সভাপতি হিসেবে কে কোথায় দায়িত্ব পাবেন, তার দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন কোচবিহার জেলা বিজেপির নেতা কর্মীরা। কিন্তু সভাপতি ঘোষণার আগে যেভাবে বিভিন্ন মন্ডলের সভাপতি হিসেবে একাধিক নাম দিয়েছে তাতে কিছুটা হলেও চাপে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির নেতৃত্ব।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, শীতলকুচি বিধানসভায় ছটি মন্ডল থাকলেও 19 নম্বর মন্ডল থেকে চারটি, 18 নম্বর মন্ডল থেকে তিনটি, 17 নম্বর মন্ডল থেকে চারটি এবং 10 নম্বর মন্ডল থেকে তিনটি নাম গিয়েছে। অন্যদিকে মাথাভাঙ্গা শহর মন্ডল থেকে 2 টি, 7 নম্বর থেকে 5 টি, 6 নম্বর থেকে 7 টি নাম পাঠানো হয়েছে। তবে এই মহকুমার এগারোটি মন্ডলের মধ্যে একটি মাত্র মন্ডলেই একজনের নাম পাঠানো হয়েছে। বাকি সবখান থেকূই একাধিক নাম গিয়েছে। ফলে মন্ডল সভাপতির নাম ঘোষণার পর যাদের নাম সভাপতি থেকে বাদ যাবে, তারা বিদ্রোহী হয়ে উঠতে পারেন বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

যার ফলে কোচবিহারে বিজেপি কিছুটা হলেও চাপে পড়বে বলে দাবি একাংশের। এদিন এই প্রসঙ্গে কোচবিহার জেলা বিজেপির সভানেত্রী মালতী রাভা রায় বলেন, “দলের কর্মীদের মধ্যে চাপানউতোর অস্বাভাবিক কিছু নয়। আমাদের জেলা কমিটির ভূমিকাও এখানে নেই। রাজ্য কমিটি বিআরও নিয়োগ করে নাম জমা নিয়েছে। তারাই মন্ডল সভাপতি নির্বাচন করবে। দলে থেকে দলের নিয়ম সবাইকে মানতে হবে। আমাদের কাছে খবর রয়েছে মঙ্গলবার মণ্ডল কমিটির সভাপতি সহ পদাধীকারীদের নাম ঘোষণা করা হবে।”

কিন্তু কোচবিহার জেলায় মন্ডল সভাপতির নাম ঘোষণা করা হলেও এবং তাকে নিয়ে বিজেপি কর্মীরা আশায় বাঁচলেও শেষ পর্যন্ত গোটা প্রক্রিয়ার পর বিজেপির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসে কিনা, সেদিকেই নজর রয়েছে সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!