এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপি ছাড়লেন প্রাক্তন বিধায়ক, উলটপুরান রাজ্যে, জোর জল্পনা

বিজেপি ছাড়লেন প্রাক্তন বিধায়ক, উলটপুরান রাজ্যে, জোর জল্পনা

 

রাজনীতিতে এক গতিতেই সবকিছু চলবে বলে মনে করে বিভিন্ন মহল। কিন্তু নদীর গতিপথের যেমন মাঝেমধ্যেই পরিবর্তন হয়, ঠিক তেমনই রাজনৈতিক গতিপথেরও বিভিন্ন সময় পরিবর্তন হয় বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে সারা দেশজুড়ে গেরুয়া ঝড় বয়ে যাওয়ার পর বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর অস্তিত্ব কার্যত সংকটের মুখে পড়ে গিয়েছিল। রাজ্যে রাজ্যে বিভিন্ন বিরোধী রাজনৈতিক দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক পড়ে যায়। যার জেরে কিছুটা হলেও অস্বস্তি বজায় থাকে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে।

দলের অস্তিত্ব সংকট আটকাতে পদক্ষেপে সেই বিরোধী রাজনৈতিক দলের তরফে। কিন্তু তাতেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি উল্টে বিরম্বনা বেড়েছে। সম্প্রতি কর্নাটকের কংগ্রেস এবং জেডিএসের বিদ্রোহী বিধায়করা যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। আর এবার এই বিপুল বিধায়কদের নিজেদের দলে যোগদান করিয়ে বিজেপি বাড়তি অক্সিজেন নিলেও সেই বিজেপির অক্সিজেন কেড়ে নিতে দেখা গেল কংগ্রেসকে। যা নিয়ে এখন কর্নাটকের রাজনীতিতে ছড়িয়ে পড়েছে জোর গুঞ্জন।

বস্তুত, জেডিএস এবং কংগ্রেসের 17 জন বিধায়কের সদস্যপদ খারিজ হয়ে গিয়েছে। যা নিয়ে সেই কর্নাটকে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছিল। সেই সমস্ত বিধায়কদের রাজনৈতিক ভবিষ্যত কী হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকেই। তবে এরই মাঝে কর্ণাটকের বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদদুরাপ্পার মন্তব্যে প্রবল জলঘোলা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। অবশেষে এই 17 জন বিধায়কের মধ্যে 15 জন বিধায়ক এদিন বিজেপিতে যোগ দেন।

এদিন এই প্রসঙ্গে এই 15 জনের মধ্যে 13 জনের নাম বিধানসভা উপনির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদদুরাপ্পা। তিনি বলেন, “পুরনো দল ভেঙে আসা সবাইকে মন্ত্রী করা হবে। বিজেপি 15 টা আসনেই জয়লাভ করবে।” তবে মোট 17 জন বিধায়ক বিদ্রোহী থাকলেও অনেক আগেই এক বিধায়ক যোগ দিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু চিটফান্ড কেলেঙ্কারি এবং আরএসএস কর্মী রুদ্রেশ খুনে অভিযুক্ত রোশন বেইগকে নিজেদের দলের স্বাগত জানায়নি বিজেপি। আর এই পরিস্থিতিতে এবার 17 জন কংগ্রেস বিধায়ক যখন বিজেপিতে যোগ দিলেন তখন বিজেপির মনে আনন্দের জোয়ার বইতে শুরু করেছে। কিন্তু ফের যেন বিজেপির অস্বস্তি প্রকাশ্যে চলে এল।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিলেন বেলগাঁও কেন্দ্রের দাপুটে নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক রাজু কাগে। এদিন কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া এবং দীনেশগুন্ডু রাওয়ের উপস্থিতিতে কংগ্রেসে যোগ দেন এই বিজেপি নেতা।

আর এখানেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের প্রশ্ন, যখন 17 জন বিদ্রোহী বিধায়কের মধ্যে অধিকাংশই বিজেপিতে নাম লেখালেন, তখন বিজেপি ছেড়ে এক দাপুটে নেতার কংগ্রেসে যোগদান কর্নাটকের গতিপথকে অন্যদিকে কি গেল না? এর ফলে কি কর্ণাটকে বিজেপির অস্বস্তি আরও দ্বিগুন ভাবে বৃদ্ধি পেতে চলেছে! এখন এইসব প্রশ্ন ঘোরাফেরা করছে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মনে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!