এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিধানসভায় শুধু জেতা নয়, অন্তত 200 আসন জেতার পরিকল্পনা তৈরি গেরুয়া শিবিরের, জানুন বিস্তারিত

বিধানসভায় শুধু জেতা নয়, অন্তত 200 আসন জেতার পরিকল্পনা তৈরি গেরুয়া শিবিরের, জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তাদের টার্গেট ছিল বাংলার 42 টার মধ্যে 23 টা আসন দখল। কিন্তু তারা তাদের টার্গেটে পৌঁছতে না পারলেও তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে গত 2014 সালে দুটি আসন পাওয়া বিজেপি এবারে 18 টা আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। অন্যদিকে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমে 22 টিতে এসে দাঁড়িয়েছে।

আর লোকসভায় সাফল্য পাওয়ার পর এবার বিজেপির টার্গেট 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই বাংলার প্রতি বাড়তি নজর দিয়ে দলীয় সংগঠনের যাতে আরও শ্রীবৃদ্ধি করা যায়, তার জন্য রাজ্য নেতৃত্বকে নির্দেশ দিয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। আর এই পরিস্থিতিতে এবার বাংলা দখলের লক্ষ্যে গত দুদিন ধরে দুর্গাপুরে বিজেপির চিন্তন বৈঠক অনুষ্ঠিত হল।

যেখানে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় 200 টি আসন পাবে বলে জানিয়ে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর দিলীপ ঘোষের এই দাবি ঘিরেই এখন শুরু হয়েছে জল্পনা। কেননা লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় ভালো ফল করলেও বিধানসভায় যদি তাদের 200 টা আসন দখল করতে হয়, তাহলে তাদের এখনও অনেকটাই পরিশ্রম করতে হবে।

আর লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমে দাঁড়ানোর পরই দলকে ঘুরে দাঁড় করানোর জন্য ভোটগুরু হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে নিজের দলের রননীতিকার হিসেবে নিয়োগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার পরে সেই প্রশান্ত কিশোরের প্ল্যানমাফিক চলে জনপ্রতিনিধিদের জনসংযোগে পাঠিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। তবে প্রশান্ত কিশোর তৃণমূলের ভোটব্যাংকের দায়িত্ব নিলেও তাতে লাভের লাভ কিছুই হবে না বলে দাবি দিলীপ ঘোষের।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, বিজেপির চিন্তন বৈঠকের প্রথম দিনে রাজ্যের শাসকদল তৃনমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ কিভাবে সারা রাজ্যে বিস্তার করে দেওয়া যায় তার পরিকল্পনা যেমন নেওয়া হয়েছে, ঠিক তেমনই কাশ্মীরে সম্প্রতি 370 ধারা অবলুপ্তি ঘটিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার যে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তার প্রচারও সাধারণ মানুষের মধ্যে আরও বেশি বেশি করে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গেরুয়া শিবির।

অন্যদিকে দ্বিতীয় দিনের চিন্তন বৈঠকে রাজ্যের প্রতিটি বিধানসভা ধরে ধরে আলোচনা হয়। আর সেখানেই সেই আলোচনার ভিত্তিতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবি করেন, “আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় কমপক্ষে 200 টি আসন জিতবে বিজেপি এবং নিশ্চিতভাবেই বিজেপি সরকার গঠন হবে।” তবে দিলীপ ঘোষের এই দাবিকে পাত্তা দিতে নারাজ তৃনমূল। তাদের দাবি, বাংলার মাটি দুর্জয় ঘাঁটি।

এখানে মিথ্যে কথা বলে, কুৎসা করে, আর যাই হোক ক্ষমতা দখল করা যায় না। তবে এই দাবি পাল্টা দাবির মাঝেই শেষ পর্যন্ত আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন না আসা অব্দি, কে কটা আসন দখল করতে পারে তা বলতে পারবেন না কেউই। তবে এ নিয়ে চর্চা চলবে। তাই সেই চর্চার দিকে এখন নজর রাখতে হবে আমাদের সকলকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!