এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > বীরভূমের মানুষ চাঁটিয়ে লাল করে দেবে – সায়ন্তন প্রসঙ্গে অনুব্রত

বীরভূমের মানুষ চাঁটিয়ে লাল করে দেবে – সায়ন্তন প্রসঙ্গে অনুব্রত

চলতি মাসেই লোকসভা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে যাবে,এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। কাজেই লোকসভা ভোটের যে আর বেশিদিন বাকি নেই তা বলাবাহুল্য। আর এই প্রেক্ষিতেই প্রতিপক্ষশিবিরের আক্রমণ তথা পাল্টা আক্রমণের খেলায় ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে রাজনৈতিকমহল।

বীরভূম বেশিরভাগ সময়েই রাজ্য রাজনৈতিক চর্চার কেন্দ্রে অবস্থান করে। আর এই জেলার সবথেকে দোর্দন্ডপ্রতাপশালী নেতা হিসাবে পরিচিত জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মন্ডল। তিনি বিধায়ক বা সাংসদ নন,নন জেলা পরিষদের কর্তা,তবুও বিতর্ক তাঁর পিছু ছাড়ে না। তাঁর বিরুদ্ধে বিরোধীদের অভিযোগের অন্ত নেই।

তবুও কাউকে তোয়াক্কা না করে তিনি চলেন নিজের স্টাইলে। বিরোধীদোর তোপ দাগতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। একাধিকবার মন্তব্য বিতর্কেও নাম জড়িয়েছে তৃণমূলের এই ডাকাবুকো নেতার। এদিন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুকে উদ্দেশ্য করে ফের অশালীন মন্তব্য করে ফেললন অনুব্রত৷ বললেন,’বীরভূমের মানুষ চাঁটিয়ে লাল করে দেবে।’ কেন হঠাৎ করে অনুব্রত বাবু এমন মন্তব্য করলেন আসুন দেখে নেওয়া যাক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বীরভূমের মহম্মদবাজারের দলীয় সভা করেছিলেন সায়ন্তন বসু। সেখানে মঞ্চে বক্তব্য রাখতে উঠে নাম না করেই অনুব্রত মন্ডলের মাথায় ১০০ কেজির বোমা ফেলার কথা বলেছিলেন। সায়ন্তন বসুর বক্তব্য,’যখন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামণের দেখা হবে, তাঁকে তাঁরা বলবেন, হাজার কেজির দরকার নেই, বীরভূমের কোথাও কোথাও ১০০ কেজির বোমা ফেলার দরকার আছে।’

এর পাশাপাশি অভিযোগের সুর চড়া করে বিজেপি নেতা আরো বললেন, বীরভূমকে মিনি পাকিস্তান তৈরি করা হয়েছে। এরপর পরোক্ষভাবে অনুব্রত মন্ডলকে ‘মহিষাসুর’ বলে উদ্ধৃত করে ওই নেতার মাথায় বোমার আঘাত করা উচিত বলেও মন্তব্য করেছিলেন সায়ন্তন বসু।

বিজেপি নেতার এই কটাক্ষ বুঝে নিতে অসুবিধা হয়নি অনুব্রত মণ্ডলের। সায়ন্তন বসুর ২৬ ফেব্রুয়ারির পাল্টা দিতেই অনুব্রত মণ্ডল গতকাল প্রশ্ন তুলে বলেন,’সায়ন্তন বসু বলে গিয়েছেন, বীরভূমে বোমা ফেলা উচিত। আর বীরভূমের মানুষ তাকিয়ে তাকিয়ে দেখবে?’

এরপর নিজেই কড়া মেজাজের সুরে বলেন,’বীরভূমের মানুষ চাঁটিয়ে লাল করে দেবে।’ অনুব্রত মণ্ডলের এই কড়া হুমকি শুনে বিজেপিও চুপ করে থাকবে না। লোকসভা ভোটের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে প্রতিপক্ষশিবিরের এই ধরণে মন্তব্য পাল্টা গেরুয়াশিবির কর্তারা নিজস্ব স্টাইলে দেবে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!