এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বর্তমান সরকারকে সন্ত্রাস বন্ধ করে মানুষের জন্য কাজের আবেদন করলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

বর্তমান সরকারকে সন্ত্রাস বন্ধ করে মানুষের জন্য কাজের আবেদন করলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

ত্রিপুরার অমরপুর মহকুমার অন্তর্গত সিপিএমের দলীয় কার্যালয়ে মে দিবসের পতাকা উত্তোলনে বাধা দিলো রাজ্যের নব নির্বাচিত শাসক দল বিজেপির কর্মী ও সমর্থকরা। আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস তথা মে দিবসের দিন সকালে বাম দলের নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে শ্রমিক দিবস পালনের জন্য উপস্থিত হয়েছিলেন। অল্প সময়ের মধ্যেই সেখানে কিছু বিজেপি দলের কর্মী ও সমর্থক হাজির হয়ে উপস্থিত সিপিএম দলের সদস্যদের উদ্দেশ্যে অশালীন আচরন করতে আরম্ভ করে এবং মে দিবসের অনুষ্ঠান উদ্‌যাপনে বাধা দেয়। শুধু অমরপুর বলেই নয় সমগ্র ত্রিপুরার বিচ্ছিন্ন অংশে ঐদিন একই ঘটনা আলাদা চরিত্র এবং আলাদা পরিমন্ডলে ঘটতে দেখা যায়। উল্লেখ্য ঐদিন সকালে পশ্চিম জেলার ডুকলিতে সিপিএমের দলীয় কার্যালয়ে পতাকা উত্তোলনে বাধা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

অন্যদিকে আগরতলা স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার সামনে মে দিবসের জমায়েত হলে বিএমএসের পতাকা নিয়ে কিছু লোক এসে বাধা দেয় বলেও অভিযোগ উঠেছে| আগরতলার ফায়ার সার্ভিস চৌমহনিতে মে দিবসের বেদিও ভেঙে দেওয়া হয়। ঐদিনের বিচ্ছিন্ন সন্ত্রাসের ঘটনার জেরে কার্যত অসন্তুষ্ট রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেবের কাছে এই সন্ত্রাস বন্ধের জন্যে আবেদন জানালেন। ঐদিন বিকেলে আগরতলা প্যারাডাইস চৌমহনিতে মে দিবসের এক জমায়েতে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বললেন, ”এ বারের বিধানসভা ভোটে নানা প্রলোভন ও বিভাজনের খেলা হয়েছে। কিছু মানুষ বিভ্রান্ত হয়েছেন। সকলে নয়। নয়তো আমরা ৪৫% ভোট পেতাম না। মানুষের রায় আমরা মেনে নিয়েছি। চোখ-কান বুজে সরকারের বিরোধিতা করব না। কিন্তু বর্তমান সরকারের কাছে আবেদন, সন্ত্রাস বন্ধ হোক। কাজ করুন। মানুষ মানিক পাল্টে হীরা তো এনেছে। কিন্তু রাজ্যে দেখা যাচ্ছে নানা শ্রমিক সংগঠনের অফিসের রং পাল্টে নিচ্ছে। হুমকি দিয়ে টাকা তোলা হচ্ছে।” মে দিবস পালনের অনুষ্ঠানে বাধা দেওয়ার ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বললেন, ”যারা এ সব করছে, তারা শ্রমিক-বিরোধী। আরএসএস, বিজেপি এবং বিএমএসের লোকেরা আজ বিভিন্ন জায়গায় মে দিবসের কর্মসূচি পালনে বাধা দেয়। আমরা এর নিন্দা করছি।’

আজ থেকে প্রিয় বন্ধু বাংলার অফিসিয়াল ফেসবুক আইডি হল – Priyo Bandhu Bengali

আমাদের সব খবর, সমস্ত আপডেট পাওয়া যাবে এখানেই – https://www.facebook.com/pbmediaofficial/

Top
error: Content is protected !!