এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > প্রকাশ্য লড়াইয়ে বিনয়-গুরুং, পাহাড়ের রাজনীতির রাশ শেষ পর্যন্ত কার হাতে?

প্রকাশ্য লড়াইয়ে বিনয়-গুরুং, পাহাড়ের রাজনীতির রাশ শেষ পর্যন্ত কার হাতে?

একদা মোর্চা থেকে পাহাড় সমস্ত কিছুরই সম্রাট ছিলেন বিমল গুরুং। মাঝে তিস্তা, তোর্সা দিয়ে অনেক জল গড়িয়েছে। দীর্ঘ অশান্তির জেরে এখন কার্যত ফেরার সেই বিমল গুরুং। মোর্চার দ্বায়িত্বে এখন তাঁরই একসময়ের সহযোদ্ধা বিনয় তামাং। এদিন কার্শিয়াং বাসষ্ট্যান্ডে এক প্রকাশ্য সভা থেকে সেই বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করলেন জিটিএর চেয়ারম্যান তথা মোর্চার সভাপতি বিনয় তামাং। সম্প্রতি বারে বারে অডিও বার্তার মাধ্যমে গোর্খাল্যান্ডের দাবি তোলা বিমল গুরুংকে একহাত নিয়ে এদিন বিনয় তামাং বলেন, “আমি বিমলের এই অডিও ভিডিও সব বন্ধ করে দেব। গনতান্ত্রিক দ্বায়িত্ব ও ইজ্জতের কথা বললেও উনি কি করছেন তার সব আমি জানি।” এদিন জিটিএর চেয়ারম্যান বিনয় তামাং বিমল গুরুংকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, “11 জোলাই মুখ্যমন্ত্রী পাহাড়ে আসছেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাই নয়ডা, গুরগাঁও, কাঠমান্ডু, দেরাদুনে বসে গোর্খাল্যান্ডের দাবি না তুলে হিম্মত থাকলে ময়দানে নেমে কাজ করুন।” পাশাপাশি পাহাড়ের ভোটার তালিকা গুরুংয়ের নাম বাদ পড়ায় তাঁকে আদালতে আত্মসমর্পনের নির্দেশ দিয়েছেন তাঁরই উত্তরসূরী বিনয় তামাং। এদিনের  সভা থেকে বিজেপিকেও কটাক্ষ করে জিটিএর চেয়ারম্যান বলেন, “2009 ও 14 সালে বিজেপির ইন্ধনে শুধু ভোটের দিকে তাকিয়েই এই গোর্খাল্যান্ড কমিটি গড়া হয়েছিল। 2019 র ভোটে বিজেপির সাথে কোনোরুপ সমঝোতা নয়।” রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ঠিক মুখ্যমন্ত্রীর পাহাড় সফরের আগে বিমল গুরুং সহ বিরোধী দলগুলিকে হুশিয়ারি দিয়ে কার্যত নিজেদের অস্তিত্ব প্রমান করতে চাইলেন মোর্চা সভাপতি বিনয় তামাং। তবে নির্বাসনে যাওয়া বিমল গুরুং ফের বেরিয়ে আসলে পাহাড় আশার কার হাতে যাবে সেদিকেই তাকিয়ে কাঞ্চনকন্যা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!