এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > বড় সাফল্য কেন্দ্র সরকারের – ২৬/১১-এর মুলচক্রীকে দেশে আনার পথে সবুজ সংকেত পেলেন নরেন্দ্র মোদী

বড় সাফল্য কেন্দ্র সরকারের – ২৬/১১-এর মুলচক্রীকে দেশে আনার পথে সবুজ সংকেত পেলেন নরেন্দ্র মোদী


লোকসভা নির্বাচনের আগে নতুন পালক দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মুকুটে। মুম্বইয়ের ২৬/১১ হামলার মুলচক্রী তাহাউর হুসেন রানাকে এবার নিজেদের হাতে পেতে চলেছে ভারত। সূত্রের খবর, বর্তমানে তাহাউর আমেরিকায় ১৪ বছরের সাজা কাটাচ্ছে – যা আগামী ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে সম্পূর্ণ হতে চলেছে। আর, সেই সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেই ভারতের হাতে তাকে তুলে দেওয়া হতে পারে জানিয়েছে আমেরিকা সরকার।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসার পরেই নরেন্দ্র মোদী জোর দিয়েছিলেন বিদেশ নীতিতে। তাঁর একাধিকবার বিদেশযাত্রা নিয়ে কম কটাক্ষ করেনি কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধীরা – কিন্তু, সে সবে কান না দিয়ে নরেন্দ্র মোদী নিজের নীতিতে অটল ছিলেন। আর তারফলেই আমেরিকার সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্ব আরও দৃঢ় হয়েছে। কিছুদিন আগেই পাকিস্তানকে একঘরে করার প্রয়াস শুরু হওয়ার পাশাপাশি এবার তাহাউর হুসেন রানাকে ভারত নিজেদের হাতে পেতে চলেছে বলে জানা গেছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

যদিও, অপর এক সূত্র থেকে জানা গেছে তাহাউরকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া খুব একটা সোজা কাজ নয়। আর তাই প্রয়োজনীয় তথ্য আদান-প্রদানের কাজ সেরে ফেলতে চায় দুই দেশের সরকার। এমনকি সব ঠিকঠাক থাকলে, আমেরিকায় রানার সাজা শেষ হওয়ার আগেই ভারতের হাতে তাকে তুলে দেওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্রের খবর, মার্কিন সরকারের বিদেশ মন্ত্রক, স্বরাষ্ট্র ও আইন-বিচার মন্ত্রক এবং বিচার মন্ত্রক প্রত্যেকের নিজস্ব প্রত্যাপর্ন পদ্ধতি রয়েছে। প্রত্যেকটি মন্ত্রকই তাদের নিজের নিজের পদ্ধতি দ্রুত সারার চেষ্টা করছে।

প্রসঙ্গত, এনআইয়ের দল সম্প্রতি আমেরিকায় গিয়েছিল এবং সেখানকার প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে রানার প্রত্যাবর্তন সংক্রান্ত জরুরি কাজগুলি দ্রুত করার অনুরোধ করেছে। ২৬/১১-এর মুলচক্রীকে ভারতে ফেরাতে যেমন মোদী সরকার মরিয়া, তেমনই জোড় দেওয়া হচ্ছে ভারত-মার্কিন সম্পর্ক আরও মজবুত করতে। তাই ,ভারত-মার্কিন সরকার যদি তার প্রত্যাবর্তন করাতে ব্যর্থ হয় তবে তাকে কানাডা থেকে নির্বাসিত করে দেওয়া হবে। কেননা, তাহাউর হুসেন রানা পাকিস্তানি বংশোদ্ভুত কানাডার নাগরিক। সেক্ষত্রে, ভারত ঘুরপথে রানাকে নিজেদের হাতে নিয়ে নেবে। সবমিলিয়ে কেন্দ্র সরকারের এই পদক্ষেপে খুশির হাওয়া দেশজুড়ে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!