এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শোভনের সব দায়িত্ব ফিরহাদ-অরূপকে, শীঘ্রই রাজ্য মন্ত্রীসভায় বড়সড় রদবদলের পথে মুখ্যমন্ত্রী

শোভনের সব দায়িত্ব ফিরহাদ-অরূপকে, শীঘ্রই রাজ্য মন্ত্রীসভায় বড়সড় রদবদলের পথে মুখ্যমন্ত্রী

চলতি সপ্তাহে মুখ্যমন্ত্রীর জঙ্গলমহল-বর্ধমান সফরের পরই মন্ত্রীসভার বড়সড় রদবদল হওয়ার ব্যাপক সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বে সঠিক উত্তর না পেয়ে মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে যথেষ্ট অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন নেত্রী। ব্যক্তিগত সম্পর্কের টানাপোড়েনের জেরে মন্ত্রীত্বের কাজ অবহেলার অভিযোগে তিনটি দপ্তরের মন্ত্রীত্ব এবং মেয়র পদ থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে সম্প্রতি।

তাছাড়া এর আগে গত ৬ জুন চূড়ামণি হাঁসদা, জেমস কুজুর এবং অবনীমোহন জোয়ারদারকে মন্ত্রীসভা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। দায়িত্ব কমানো হয়েছিল রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়েরও। ফলত এই মুহূর্তে মন্ত্রীসভায় ৪ টি শূন্যপদ রয়েছে। এই শূন্যপদ পূরণ করতেই মন্ত্রীসভাকে ঢেলে সাজাতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই তালিকা তৈরি করতে গিয়ে তিনি যেমন কাজের যোগ্যতা খতিয়ে দেখবেন, তেমনই সেই ব্যক্তি দায়িত্বে আসার জন্যে কতোটা যুক্তিযুক্ত সেটাও বিশ্লেষণ করে দেখবেন নেত্রী।

নবান্ন সূত্রের খবর, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের পদত্যাগের পর তাঁর অধীনস্থ দমকল দপ্তরের দায়িত্বে আসতে পারেন ফিরহাদ হাকিম। আবাসন দপ্তরে আসার প্রবল সম্ভাবনা অরূপ বিশ্বাসের। ফিরহাদ হাকিম বর্তমানে পুর এবং নগরোন্নয়ন দপ্তর সামলাচ্ছেন আর পূর্ত, ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ মন্ত্রীত্বের দায়িত্বে রয়েছেন অরূপবাবু। মুখ্যমন্ত্রীর আস্থাভাজন এই দুজনের কাঁধে দায়িত্ব বাড়ার প্রবল সম্ভাবনা তৈরু হয়েছে। আপাতত এই দুটি দপ্তরের দায়িত্ব বন্টন হলেও গোটা মন্ত্রীসভারই রদবদল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আগামী সপ্তাহেই সফর সেরে বৈঠকে বসবেন নেত্রী। ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাসের মতো অমিত মিত্রের কাঁধেও ভারী বোঝা রয়েছে। অর্থ ও শিল্প দপ্তরের পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরও সামলাচ্ছেন তিনি। তার উপর তাঁকে দেওয়া হয়েছে ই-গভর্ন্যান্সের দায়িত্বও। ইতিমধ্যেই মেয়রের দায়িত্ব বসানো হয়েছে পুর-নগোরন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে। কলকাতার পুরসভার কাজকর্মকে ফের চাঙ্গা করতেই গুরু দায়িত্বে আনা হয়েছে তাঁকে। তার উপর দমকলের মতো ব্যস্ত দপ্তরের কার্যভারও দেওয়া হয়েছো তাঁকে।

অন্যদিকে, পূর্ত দপ্তরের মতো গুরুদায়িত্ব সামলে অরূপ বিশ্বাসকে ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ দপ্তরের দায়িত্ব পালন করতে হয়। এর উপর ঘাড়ে চাপল আবাসন মন্ত্রক সামলানোর মতো গুরু দায়িত্ব। অবশ্য আবাসন মন্ত্রক সামলানোর অভিজ্ঞতা তাঁর আগেও রয়েছে। আবার মন্ত্রীসভার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কান্ডারী মলয় ঘটক। আইন,শ্রম ও জনস্বাস্থ্য কারিগরির মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সামলাচ্ছেন তিনি।

মোদ্দাকথা হল, লোকসভা ভোটের আগে মন্ত্রীসভায় বড়সড় পরিবর্তন এনে মন্ত্রকের কাজকর্মে গতি আনতে চান মুখ্যমন্ত্রী। বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বে কাজে অবহেলার জন্যে কয়েকজন মন্ত্রীকে যেমন ধমক দিয়েছেন নেত্রী, তেমনি কয়েকজন বিধায়কের কাজে সন্তোষও প্রকাশ করেছেন নেত্রী। প্রকাশ্যেই তাঁদের কাজের প্রশংসা করেছেন তিনি। আবার যাঁরা যাঁরা গোপনে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন তাঁদের দিকেও কড়া নজর রয়েছে নেত্রীর, এমনটাও চাঁচাছোলা ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন নেত্রী। সবমিলিয়ে আসন্ন মন্ত্রীসভার রদবদল ঘিরে চূড়ান্ত জল্পনা শাসকদলের অভ্যন্তরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!