এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > BIG BREAKING – প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে পৌঁছলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

BIG BREAKING – প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে পৌঁছলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়


করোনার দাপটে কার্যত দিশেহারা গোটা বিশ্ব। আর তার মারণ থাবা থেকে বাঁচে নি বাংলাও। এই মারণ ভাইরাসের কোনো প্রতিষেধক এখনও পর্যন্ত না বেরোনোয়, করোনা মহামারীর হাতে কার্যত দিশেহারা হয়ে গেছে সবাই। আর তার মাঝেই গোদের উপর বিষফোঁড়ার মত বাংলার বুকে আছড়ে পড়ল ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফান। এই ঝড়ের দাপটে কার্যত লন্ডভন্ড হয়ে গেছে পশ্চিমবঙ্গ।

ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফানের তান্ডবে পূর্ব মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, কলকাতা, হাওড়া, হুগলী ও পূর্ব বর্ধমানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। চলে গেছে বহু প্রাণ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকালই জানিয়েছিলেন লক্ষ লক্ষ কোটি টাকার ক্ষতি হয়ে গেছে। উপরে গেছে গাছ থেকে শুরু করে ইলেকট্রিক পোস্ট, মোবাইলের টাওয়ার। কিভাবে এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাংলা ঘুরে দাঁড়াবে তাই নিয়েই সকলে ভাবিত।

এই পরিস্থিতিতে সকাল থেকেই হঠাৎ গুঞ্জন ছড়িয়ে পরে, পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কোনো কথা বলছেন না কেন? ইতিমধ্যেই তিনি ট্যুইট করে জানিয়েছেন, গোটা দেশ পশ্চিমবঙ্গের ক্ষয়ক্ষতির জন্য সমব্যাথী। আর শুধু সমবেদনা জানানোই নয়, পশ্চিমবঙ্গের সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে এবার তিনি স্বয়ং আসছেন বাংলার মাটিতে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফানের দাপটে ছিন্নভিন্ন হয়ে যাওয়া বাংলার সার্বিক অবস্থা খতিয়ে দেখতে আজ রাজ্যে আসছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।আজ সকাল ১০:৩০ টায় কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী। আর তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা অবন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে স্বাগত জানাতে পৌঁছালেন বিমানবন্দরে। এরপরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে হেলিকপ্টারে সাইক্লোন বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শন করবেন তিনি। পরবর্তীকালে, বসিরহাটে প্রশাসনিক বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যের মুখ্যসচিব।

সূত্রের খবর, বাংলার সার্বিক অবস্থা পরিদর্শনের পরেই তিনি বাংলার জন্য বিশেষ প্যাকেজও ঘোষণা করতে পারেন। প্রসঙ্গত, স্মরণকালের মধ্যে আমফানের মত ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের কথা মনে করতে পারছেন না কেউই। এর আগে ২০০৯ সালে বাংলার বুকে আছড়ে পড়েছিল আয়লা – এটাই ছিল এখনো পর্যন্ত সবথেকে ভয়ঙ্কর প্রাকৃতিক দুযোগ। কিন্তু, আমফানের আঘাতের পর যে ক্ষতচিহ্ন বাংলার বুকে হয়েছে তা ছাড়িয়ে গেছে আয়লাকেও। আর তাই পরিস্থিতির গুরুত্ব বিচার করে আজ বাংলার ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী অবস্থা খতিয়ে দেখতে আসছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!